জেলা সংবাদ

ছাত্রলীগ থেকে উঠে আসা সফল রাজনীতিক ব্যাক্তিত্ব

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০১৯

নিজস্ব প্রতিনিধি ■ বাংলাদেশ প্রেস

মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলকে ঘিরে সভাপতি পদে তৃনমুলের ভাবনায় এগিয়ে রয়েছেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিকবারের সাবেক সাধারন সম্পাদক এম. হুমায়ুন মোরশেদ খান।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলকে সামনে রেখে তার অতীত রাজনৈতিক কর্মকান্ডের অনেক ছবি নতুন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালও হয়েছে। অনেকেই তাঁকে মাটিরাঙ্গায় আওয়ামী লীগের আগামী দিনের অভিভাবকও ভাবতে শুরু করেছে।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলের সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম থেকে যোগ্যতা ও প্রজ্ঞায় অনেক বেশী এগিয়ে রয়েছেন এম. হুমায়ুন মোরশেদ খান। এমনটাই বলছেন স্থানীয় রাজনীতি সচেতন মহল।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতেগড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের তৃনমুল থেকে উঠে আসা এক ত্যাগী আওয়ামী লীগ নেতা এম. হুমায়ুন মোরশেদ খান।

১৯৬৮ সালের ২০ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার গহিরায় এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এ রাজনীতিক। গহিরা এ জে ওয়াই হাই স্কুলে পড়ার সময়ই রাজনীতিতে হাতেখড়ি। ১৯৮৪-১৯৮৭ মেয়াদে গহিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৮৬ সালে চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয় কলেজ থেকে এইচএসসি ও ১৯৮৯ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ পাশ করেও সরকারী চাকুরীতে যোগ না দিয়ে রাজনীতিতেই থিতু হন এম. হুমায়ুন মোরশেদ খান। ৫ম ও ৭ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর মাটিরাঙ্গা উপজেলায় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর মাটিরাঙ্গা উপজেলায় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এম হুমায়ুন মোরশেদ খান।

এছাড়াও ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে সফলতার প্রমান দেন।

১৯৯৬-২০০৩ টানা দুই মেয়াদে মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ পালন করেন। এসময় তিনি নিজেকে একজন সফল ও কর্মী বান্ধব রাজনৈতিক নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন। ২০০৩-২০০৭ মেয়াদে মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। অভিজ্ঞতা আর যোগ্যতায় তিনি ২০০৬-২০১২ মেয়াদে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক হিসেবেও নির্বাচিত হন।

রাজনীতির পাশাপাশি একজন সফল ব্যাবসায়ী হিসেবে তার অর্জন রয়েছে। তিনি মাটিরাঙ্গার শীর্ষ ব্যবসায়ী সংগঠন ‘মাটিরাঙ্গা কাঠ ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির’ প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক (১৯৯৩-১৯৯৭) হিসেবে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করেছেন। তিনি ১৯৯৭-২০০১ মেয়াদে খাগড়াছড়ি জেলা কাঠ ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাধারন সম্পাদক হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

রাজনীতি আর ব্যাবসার পাশাপাশি শিক্ষানুরাগী হিসেবেও এম. হুমায়ুন মোরশেদ খান শিক্ষক ও সুশীল সমাজে সমান জনপ্রিয়। তিনি মাটিরাঙ্গা ডিগ্রী কলেজ পরিচালনা পর্ষদের (১৯৯৬-২০১১) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি হিসেবে শিক্ষার মানোন্নয়নে ভুমিকা রাখেন। ২০০৮-২০১১ মেয়াদে মাটিরাঙ্গা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও মাটিরাঙ্গা ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার হাত ধরেই মাটিরাঙ্গা ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা আলিম মাদরসায় উন্নীত হয়।