জেলা সংবাদ

  • ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে দিনমজুর দুই যুবকের পুরুষাঙ্গ কর্তন করে হিজড়ায় রুপান্তর

    ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে দিনমজুর দুই যুবকের পুরুষাঙ্গ কর্তন করে হিজড়ায় রুপান্তর

  • লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে সড়ক দূর্ঘটনায় দুইজন নিহত,আহত ৫

    লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে সড়ক দূর্ঘটনায় দুইজন নিহত,আহত ৫

  • নড়াইলে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ গ্রেফতার-২২

    নড়াইলে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ গ্রেফতার-২২

  • ঝিনাইদহে ভুমি দস্যুরা বেপরোয়া জাল পরচা তৈরী করে কোটি টাকার জমি রেজিষ্ট্রি খুনোখুনির আশংকা

    ঝিনাইদহে ভুমি দস্যুরা বেপরোয়া জাল পরচা তৈরী করে কোটি টাকার জমি রেজিষ্ট্রি খুনোখুনির আশংকা

  • কক্সবাজার সৈকতে আরাফাত'র অকাল মৃত্যু : একটি দূর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না

    কক্সবাজার সৈকতে আরাফাত'র অকাল মৃত্যু : একটি দূর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না

বোয়ালখালীতে চলছে মালম বাহিনীর নৈরাজ্য : মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়ী বাড়ী হামলা

প্রকাশ: ০৯ মার্চ ২০১৮     আপডেট: ০৯ মার্চ ২০১৮

বাংলাদেশ প্রেস, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলায় আইন শৃংখলা পরিস্থিতির দিন দিন চরম অবনতি হচ্ছে। চট্টগ্রামের শহরতলীর এই জনপদটিতে এখন মালম বাহিনী ত্রাসের রাজত্ব। বিভিন্ন ইউনিয়নে মালম ও তার সহযোগিদের নৈরাজ্যের মাত্রা দিন দিন বৃদ্ধি পেলেও এদের নির্মূলে আইন শৃংখলার বিন্দুমাত্র কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি। বরং বোয়ালখালী থানার বেশ ক'জন পুলিশ সদস্যদের সাথে মালমের দৈনন্দিন উঠা বসার চিত্র দেখছে স্থানীয় জনগন। কথায় কথায় গুলি চালানো মালম বাহিনীর রেওয়াজ হয়ে উঠলেও এসব অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে চালানো হয়নি কোন অভিযান। স্থানীয়দের মতে বোয়ালখালী থানা পুলিশ মালম বাহিনীর বিভিন্ন অবৈধ আখড়া থেকে অনৈতিক সুবিধা নেয়। উপজেলার দেশীয় মদের আখড়া ও অবৈধ বালি উত্তোলনের পয়েন্ট থেকে দৈনিক নির্ধারিত অংকের টাকা থানায় দেয়া হয়। এসব কারণে মালম বাহিনী পুলিশকে কিনে রেখেছে এমন কথা অত্র এলাকার মানুষের মুখে মুখে প্রচলিত আছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে যুবতী নারীরাও এই মালম বাহিনীর আতংকে ঘর ছাড়া। সন্ধ্যার পর মদ পান করে যখন যে বাড়ীতে ইচ্ছে প্রবেশ করে মালম ও তার সহযোগীরা নারীর শ্লীলতাহানির মতন ঘটনা ঘটালেও সামাজিক লাজলজ্জার ভয়ে অনেকেই মুখ খুলতে নারাজ। সাম্প্রতি এক গৃহ বধূ মালমের হাতে লাঞ্চিত হয়ে এলাকা ছেড়ে আত্মগোপনে রয়েছে। আর এতো এতো অপরাধের পরো স্থানীয় থানার পুলিশ আজ অব্দি কখনোই মালুমের বাড়িতে অভিযান পর্যন্ত চালায়নি বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। মালমকে রক্ষায় স্থানীয় পুলিশ কাজ করছে বলে ভূক্তভূগীরা অভিযোগ তুলেছে। এমনকি সাম্প্রতিক মামলা গুলোতে বোয়ালখালী পুলিশ থানার কম্পিউটারে এজহার টাইপ করার সময় মামলার বাদিকে রুমে থাকতে না দিয়ে নিজেদের ইচ্ছে মতন এজহার লিখে মামলাকে দূর্বল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মালমের বাবা জীবিত থাকা সত্বেও একাধিক মামলারর এজাহারে পুলিশ নিজেরা টাইপ করে মাহবুব আলম প্রকাশ মাহে আলমের পিতাকে মৃত উল্লেখ করেছে। অথচ মালমের পিতা মাহমুদ মিয়া দিব্যি জীবিত। এভাবে দিন দিন বেপরোয়া হয়ে ওঠা মালম বাহিনীর সর্বশেষ বর্বরতার শিকার হয়েছে বোয়ালখালী উপজেলার দুইজন বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবার। প্রকাশ্য একের পর এক গুলি চালিয়ে মুক্তিযোদ্ধার বাড়ীতে ঢুকে মালামাল লুট করে নেয়ার ঘটনা সংঘটিত হলেও বরাবরের মতন দেখেও না দেখার মতন হয়ে আছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। ইতিমধ্যে এই সকল ঘটনায় মানব বন্ধন সহ প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করা হলেও মালম ও তার সঙ্গিরা রয়ে গেছে ধরা ছোয়ার বাহিরে। আর এসব ঘটনার অনুসন্ধানে বাংলাদেশ প্রেস প্রতিবেদক সরেজমিন বোয়ালখালীর বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে পেয়েছে নানান চাঞ্চল্যকর তথ্য। 


গত ২২ শে ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেনের বাড়ী একের পর এক গুলি বর্ষনে কেঁপে উঠে। এসময় বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড বাবুল (৪৫), কাউছার (৩২), টিপু (৩০), আমজাদ (২৮), ইসমাইল (৩৫), শওকত (৩২), মিজান সহ বাহিনীর অন্যান সদস্যরা দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র ও লাঠি শোটা নিয়ে পুরো বাড়ী ঘিরে ফেলে। ঘরে ভেতর মুক্তিযোদ্ধা শওকতের ছোট ছেলে সাজ্জাদ (২২) ও পরিবারের নারী সদস্যরা নিরুপায় হয়ে মোবাইলে অন্যানদের কাছে সংবাদ পৌছে সহায়তা প্রার্থনা করে। এসময় মুক্তিযোদ্ধা শওকত ও তার বড় ছেলে শাহাদাত চট্টগ্রাম শহরের বাসায় অবস্থান করছিলেন। একের পর গুলি ছুড়ে মালম বাহিনীর সদস্যরা এক পর্যায়ে সদর দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে। প্রাণ বাঁচাতে সাজ্জাত পেছনের দরজা দিয়ে দৌড়ে পালায়। এসময় মালম হামলার শিকার হয় বাড়ীর নারীর সদস্যরা। মারধর আর পরনের কাপড় ধরে শ্লীলতাহানীর করার পাশাপাশি ঘরে রক্ষিত ৫ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ৭০ হাজার টাকা লুটে নেয়। মুক্তিযোদ্ধা শওকতের পরিবারের আত্মচিৎকারে প্রতিবেশী আজিম ছুটে আসেন। তিনি সেদিন রাতে গোলাগুলির শব্দ শুনে শওকতের বাড়িতে ছুটেন বলে জানান। আজিম বাংলাদেশ প্রেসকে বলেন, আমি মালমকে হাতে পায়ে ধরে নিভৃত করার চেষ্ঠা করি। কিন্তু মালম এতোটাই আগ্রাসী যে এক পর্যায়ে প্রাণ বাজাতে আমি শওকতের বাড়ী থেকে ফিরে আসতে বাধ্য হই"। গুলির আঘাতে ফুটো হওয়া জানালার কাঁচ দেখিয়া কান্না জড়িত কন্ঠে বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন বাংলাদেশ প্রেসকে বলেন," বঙ্গবন্ধুর ডাকে আমরা যুদ্ধ করে এই দেশটা স্বাধীন করেছিলাম। আজ আমাদের এই স্বাধীন দেশে এভাবে প্রকাশ্য সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হতে হয়েছে যা কখনো কল্পনাও করিনি।" শওকত জানান, আমি বাড়ীতে ডাকাতির সংবাদ পেয়ে আমার বড় সন্তানকে নিয়ে দ্রুত বোয়ালখালী থানায় চলে আসি। এসময় আমি নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা পরিচয় দিয়ে থানার ওসি হিমাংশু কুমার দাশ রানার কাছে দ্রুত আমার পরিবারকে রক্ষার জন্য অনুরোধ করলে ওসি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা হয়েছেন তো কি হয়েছে ? পুলিশের কি আর কোন কাজ নাই। একথা শুনে আমি তাৎক্ষনাত একা আমার বাড়ীর দিকে রওনা হই। সেই সময় শুধু একটা কথাই ভাবছিলাম, ৭১ সালে সরাসরি যুদ্ধ করেছি। সেই যুদ্ধে মারাও যেতে পারতাম, আজ আমার পরিবারের জীবন বাঁচাতে যদি মরতে হয় মরবো। মুক্তিযোদ্ধা শওকত বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা দেয়ার আগে তার বড় ছেলে শাহদাত হোসেনকে পুলিশ নিয়ে বাড়ীতে আসার জন্য থানায় রেখে যান। সেই রাতে থানায় উপস্থিত শাহাদাত বাংলাদেশ প্রেসকে বলেন, থানার সেকেন্ড অফিসার ফারুক সাহেব সহ অন্যান প্রায় সব অফিসারের সাথে মালমকে এলাকায় ঘুরাঘুরি করতে দেখেছি। ফলে ধারণা ছিলো পুলিশ আমাদের বাড়ীতে যাওয়ার আগে নিশ্চিত মালমকে আগাম তথ্য জানিয়ে দেবে। রাত ১১টায় স্বশরীরে থানায় গিয়ে সংবাদ দেয়ার পর নানান অনুরোধ আর কাকুতি মিনতিতে রাত ১ টায় ওসি সহ পুলিশ মুক্তিযোদ্ধা শওকতের বাড়ীতে যায়। পুলিশ আসার আগেই মালম ও তার বাহিনী  নির্ভিঘ্নে চলে যায়। যাওয়ার আগে পরিবারের সদস্যদের মামলা না করতে বলে মালম। সেই সাথে মুক্তিযোদ্ধা শওকত ও তার ছেলেদের জ্যান্ত পুতে ফেলা হবে বলেও হুমকি দেয় মালম। এই ঘটনার পর ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ একাধিল গুলির খোসা ও আলামত সংগ্রহ করে।


এই ঘটনার পর ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ একাধিক গুলির খোসা ও আলামত সংগ্রহ করে। এরপর তারা থানায় ফিরে যায়। পরদিন থানায় মামলা করতে গেলে ওসি হিমাংশু কুমার রানা নানান প্রশ্নে জর্জরিত হয় শাহাদাত। আমরা হামলা শিকার হলাম অথচ ওসি ও সেকেন্ড অফিসার ফারুক সাহেব আমাদের মামলা রেকর্ড না করে আমাদের জেরা শুরু করে। তালবাহানার পর রাত ১১টায় থানার কম্পিউটারে এজাহার টাইপ করে সেকেন্ড অফিসার ফারুক। এজহার টাইপ করার সময় মামলার বাদীলে সেই রুম থেকে বের করে দরজা আটকে দেয়া হয়। পরে অনেকটা নিরুপায় হয়ে উক্ত এজাহারে সাক্ষর করেন বলে জানান শাহাদাত। ২৩ শে ফেব্রুয়ারি রাত ১১টায় মামলা রেকর্ড হলেও এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত (৯ই মার্চ) কোন তদন্ত কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা শওকতে বাড়িতে তদন্ত করতে যায়নি। এমনকি ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শিদের বক্তব্য নথিভূক্ত করেনি। যেহেতু মামলার তদন্ত কর্মকর্তা থানার সেকেন্ড অফিসার ফারুক তাই বাদিরা অনুমান করছে মালমের সাথে সখ্যতার কারণে ফারুক এই কাল বিলম্ব করছে। এরই মধ্যে মালম, বাবুল ও কাউসার বাদে মামলার এজাহার ভূক্ত ৫ আসামী গ্রেফতার এড়িয়ে আদালত থেকে জামিন নিয়ে চলে আসে। পুলিশের সবুজ সংকেত পেয়ে এলাকায় প্রকাশ্য ঘুরতে থাকে মালম। মটোর সাইকেলে চলে তাদের মহড়া। বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত  বাড়ীতে হামলার প্রতিবাদে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এলাকায় মানব বন্ধন করে। সেই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে দেয়া হয় স্মারক লিপি। সেই মানব বন্ধনে অংশ নেয় মামলায় ২ নং আসামী বাবুলের প্রতিবেশী আরেক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী মদন। সেই সংবাদ পৌছে মালম ও বাবুলের কানে। গত ৫ মার্চ রাত ১১ টায় স্বসস্ত্র হামলা হয় একই উপজেলার পূর্ব চরণদ্বীপের আরেক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী মদনের বাড়ীতে। চালানো হয় গুলি। অথচ পুলিশ বলছে কোন গোলাগুলির ঘটনা ঘটেনি। শুরু হয় আরেক তালবাহানা। রাতারাতি নিজেকে যুবলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার চেয়ে মালমের পোস্টার ছেয়ে যায় বোয়ালখালী। 


(আগামী কাল প্রকাশিত হবে প্রতিবেদনের ২য় পর্ব)



আরও পড়ুন

ঝিনাইদহে ভুমি দস্যুরা বেপরোয়া জাল পরচা তৈরী করে কোটি টাকার জমি রেজিষ্ট্রি খুনোখুনির আশংকা

ঝিনাইদহে ভুমি দস্যুরা বেপরোয়া জাল পরচা তৈরী করে কোটি টাকার জমি রেজিষ্ট্রি খুনোখুনির আশংকা

অসৎ উদ্দেশ্যে সরকার নির্ধারিত হারের চেয়ে উচ্চ মুল্যে জমি রেজিষ্ট্রির ...

যশোরে সন্ত্রাসীদের বোমা হামলায়  যুবলীগ নেতা  আরাফাত রহমান লিটন নিহত

যশোরে সন্ত্রাসীদের বোমা হামলায় যুবলীগ নেতা আরাফাত রহমান লিটন নিহত

যশোরে সন্ত্রাসীদের বোমা হামলায় ও ছুরিকাঘাতে আরাফাত রহমান লিটন (৩২) ...

কক্সবাজার সৈকতে আরাফাত'র অকাল মৃত্যু : একটি দূর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না

কক্সবাজার সৈকতে আরাফাত'র অকাল মৃত্যু : একটি দূর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না

আমেরিকান প্রবাসী মোহাম্মদ আলী আরাফাত সদ্য স্কলারশীপ শেষ করে মা ...

চুক্তি হওয়ার পরও উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়াল আমেরিকা

চুক্তি হওয়ার পরও উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়াল আমেরিকা

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও চুক্তি সই ...

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির জনক ...

পার্কে শিক্ষার্থী গণধর্ষণের ঘটনায় ৩জনের স্বীকারোক্তি; ৭দিনের রিমান্ড আবেদন

পার্কে শিক্ষার্থী গণধর্ষণের ঘটনায় ৩জনের স্বীকারোক্তি; ৭দিনের রিমান্ড আবেদন

খাগড়াছড়িতে জেলা হর্টিকালচার পার্কে স্কুল শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণের ঘটনায় আটক ৫জনের ...

সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৫ জন নিহত-আট জেলায়

সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৫ জন নিহত-আট জেলায়

দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৫ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন ...

সেলফি তুলতে গিয়ে হাতিয়ার চেয়ারম্যান ঘাটের পন্টুন থেকে পড়ে এক কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

সেলফি তুলতে গিয়ে হাতিয়ার চেয়ারম্যান ঘাটের পন্টুন থেকে পড়ে এক কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

নোয়াখালীর হাতিয়ায় বেড়াতে গিয়ে পন্টুনে দাঁড়িয়ে সেলফি তোলার সময় মেঘনা নদীতে ...