রাজনীতি

  • জাপার মনোনয়নপ্রার্থীদের সাক্ষাৎকার ২০ নভেম্বর

    জাপার মনোনয়নপ্রার্থীদের সাক্ষাৎকার ২০ নভেম্বর

  • সংবাদমাধ্যম সজাগ দৃষ্টি রাখবে, আশা ঐক্যফ্রন্টের

    সংবাদমাধ্যম সজাগ দৃষ্টি রাখবে, আশা ঐক্যফ্রন্টের

  • জনগণই মহাজোটকে ক্ষমতায় বসাবে : বাবলা

    জনগণই মহাজোটকে ক্ষমতায় বসাবে : বাবলা

  • ঐক্যফ্রন্ট জিতলে প্রধানমন্ত্রী ঠিক করবে সংখ্যাগরিষ্ঠরা

    ঐক্যফ্রন্ট জিতলে প্রধানমন্ত্রী ঠিক করবে সংখ্যাগরিষ্ঠরা

  • ইসিকে গ্রেপ্তার নেতা-কর্মীর তালিকা দিলো বিএনপি

    ইসিকে গ্রেপ্তার নেতা-কর্মীর তালিকা দিলো বিএনপি

সংলাপে খালেদা মুক্তির দায়সারা দাবি এবং নতুন বিএনপি

প্রকাশ: ০৮ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলাদেশ প্রেস

গত ১ নভেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে বিএনপি নেতারা বঙ্গভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করে এসেছেন। সবার নেতৃত্বে ছিলেন ড. কামাল হোসেন। বিএনপির পক্ষে সেখানে গিয়েছিলেন ড. খন্দকার মোশারফ, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ড. আব্দুল মঈন খান, জমিরউদ্দিন সরকার প্রমুখ। সেখানে মূল আলোচ্য বিষয় ছিল নির্বাচন। খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রসঙ্গ ছিল গৌণ।


বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর সূচনা বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বৈঠক; এরপর চলে রুদ্ধদ্বার আলোচনা। দুই পক্ষের ৪৩ জন নেতার আলোচনার মধ্যেই চলে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আপ্যায়ন। সাড়ে তিন ঘন্টার এই আলাপে মাত্র একবার উঠেছিল খালেদা জিয়ার মুক্তির কথা। একদিন আগেও বিএনপির যে নেতারা খালেদা জিয়া ছাড়া নির্বাচনে যেতে চাইতেন না, গণভবনে তারা প্রায় সবাই এ ব্যাপারে মুখে কুলুপ এঁটে বসেছিলেন।


খালেদাকে চাইছেন না বিএনপি হাইকমান্ড ?  


গত ২০ অক্টোবর মির্জা ফখরুল ঘোষণা দিয়েছিলেন খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া তারা কোন সংলাপে যাবেন না। দশ দিন পার হতে না হতেই মির্জা ফখরুল গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে নির্বাচনকেন্দ্রিক আলোচনার জন্য হাজির হলেন। সংলাপে খালেদার জিয়ার মুক্তির প্রসঙ্গ আসলেও বিএনপি নেতাদের এ ব্যাপারে যথেষ্ট আগ্রহ দেখা যায়নি।


বরং নির্বাচনকে কেন্দ্র করেই বেশীরভাগ প্রশ্নোত্তর পর্ব চলেছিল বলে জানা যায়। এই প্রসঙ্গে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের জানান, ‘খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানের মুক্তি প্রসঙ্গ একটি দলীয় ইস্যু; জাতীয় আলোচনায় দলীয় ইস্যু উত্থাপনের সুযোগ সীমিত’।


কেঁচো খুড়তে সাপ বের হয়। সাপের সংখ্যা একাধিকও হতে পারে। খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডের সঠিক কারণ অনুসন্ধান করতে গিয়ে বিভিন্ন আইন বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলে জানা যায় যে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাক্ষী, প্রমাণ এবং অভিযোগের ভিত্তি দুর্বল ছিল। যার কারণে খুব সহজেই খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড এড়ানোর সুযোগ ছিলো। কিন্তু খালেদা জিয়ার নিয়োগকৃত দলীয় আইনজীবীদের সন্দেহজনক অতিউ‌ৎসাহে মামলার রায় শেষ পর্যন্ত খালেদা জিয়ার বিপক্ষে চলে যায়।


খালেদা জিয়া বাইরে থাকাকালীন সময়েই ড.খন্দকার মোশারফ, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দীন সরকার, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর,  ড. আব্দুল মঈন খান, রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, আব্দুল্লাহ আল নোমান, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, বরকত উল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহজাহান, শওকত মাহমুদ, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, আহমেদ আজম খান, ব্যারিস্টার আমিনুল হক, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আতাউর রহমান ঢালী, জয়নাল আবেদীন, আব্দুল হাই শিকদার, গাজী মাজহারুল আনোয়ার, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, এম এ কাইয়ুম, অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, তাজমেরী এস ইসলাম, আ ন হ আক্তার হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হারুন রশিদসহ এক ডজন নেতার সাথে আলাদা আলাদা এবং সদলবলে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সাথে একাধিক বৈঠকে বসার প্রমাণও পাওয়া যায়।


জানা যায়, মার্কিন রাষ্ট্রদূত বার্নিকাটের পরামর্শেরই বিএনপিতে জিয়া পরিবারকে মাইনাস করার কৌশল গ্রহণ করা হয়। তবে রাশিয়া এবং চীন থেকে সামরিক অস্ত্র ক্রয়ের কারণে মার্কিন প্রশাসন আওয়ামীলীগকেও ক্ষমতায় দেখতে চায় না।


তারেক ক্রমশ কোনঠাসা


মার্কিন প্রশাসনের আগ্রহে দলে ক্রমশ কোনঠাসা হয়ে পড়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন তারেক রহমান। খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর গত আগস্টে তারেক রহমানের প্রচণ্ড বিরোধীতার মুখেও দলে ফেরেন সংস্কারপন্থী ৪০০ জন নেতা-কর্মী। মির্জা ফখরুলের আগ্রহেই তারা দলে ফেরেন বলে একাধিক সূত্রে জানা যায়।


অন্যদিকে দলীয় হাইকমান্ডের একাংশের আগ্রহে চেয়ারম্যান পদে তারেক জিয়াকে সরিয়ে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড.খন্দকার মোশারফকে বসানোর দাবি উঠেছে। এই মুহূর্তে রুহুল কবীর রিজভী এবং গয়েশ্বর রায় চৌধুরী ছাড়া জিয়া পরিবারের পাশে কেউ নেই বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন

চট্টগ্রাম টেস্টে খেলা হচ্ছে না তামিমের!

চট্টগ্রাম টেস্টে খেলা হচ্ছে না তামিমের!

তামিম ইকবাল খুব করে চেয়েছিলেন চট্টগ্রাম টেস্টে খেলতে। সেটি এখন ...

মওলানা ভাসানীর ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

মওলানা ভাসানীর ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ ...

মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আজীবন কাজ করেছেন ভাসানী

মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আজীবন কাজ করেছেন ভাসানী

মেহনতি মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী আজীবন ...

পার্লামেন্টে এবার মরিচের গুঁড়া; পুলিশের নজিরবিহীন হস্তক্ষেপ

পার্লামেন্টে এবার মরিচের গুঁড়া; পুলিশের নজিরবিহীন হস্তক্ষেপ

কিছুতেই কাটছে না দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কার রাজনৈতি ও সাংবিধানিক সংকট। গত ...

ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪, নিখোঁজ ১০১১

ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪, নিখোঁজ ১০১১

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে ভয়াবহ দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৪। ...

হাইপার টেনশনে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা

হাইপার টেনশনে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা

আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ ছোট বড় সব দলের ...

মুন্সীগঞ্জে বন্দুকযুদ্ধে ১০ মামলার আসামি নিহত

মুন্সীগঞ্জে বন্দুকযুদ্ধে ১০ মামলার আসামি নিহত

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার পশ্চিম বাড়ৈখালীতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ১০ মামলার ...

নেইমারের গোলে উরুগুয়েকে সহজেই হারাল ব্রাজিল

নেইমারের গোলে উরুগুয়েকে সহজেই হারাল ব্রাজিল

আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে জয় পেয়েছে ব্রাজিল। ম্যাচে পেনাল্টি থেকে করা ...