রাজনীতি

  • নির্বাচনে কারচুপি হলে কেন প্রতিহত করলেন না : বিএনপিকে নাসিম

    নির্বাচনে কারচুপি হলে কেন প্রতিহত করলেন না : বিএনপিকে নাসিম

  • যে কারণে জামায়াত ছাড়লেন ব্যারিস্টার রাজ্জাক

    যে কারণে জামায়াত ছাড়লেন ব্যারিস্টার রাজ্জাক

  • জামায়াত বিলুপ্তির পরামর্শ দিয়ে ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগ

    জামায়াত বিলুপ্তির পরামর্শ দিয়ে ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগ

  • ব্যক্তিগত চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসার আবেদন

    ব্যক্তিগত চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসার আবেদন

  • খালেদা জিয়ার মুক্তির দুই উপায় খোলা আছে: তথ্যমন্ত্রী

    খালেদা জিয়ার মুক্তির দুই উপায় খোলা আছে: তথ্যমন্ত্রী

আজ চট্টগ্রামে আলোচিত এইট মার্ডার দিবসের ১৮ তম বার্ষিকী

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৮     আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৮

নাছির ধ্রুবতারা

"রক্তাক্ত বাংলাদেশ-লাঞ্চিত মানবতা-ধর্ষিত জাতীয়তা, জামাত-বিএনপি জোটের রাজনীতি ও দেশ পরিচালনার মূল কথা।"
আজ চট্টগ্রামে আলোচিত এইট মার্ডার দিবসের ১৮তম বার্ষিকী। বাংলাদেশের ইতিহাসে এইভাবে প্রকাশ্যে ব্রাশফায়ার করে একসাথে এতজন ছাত্রনেতা হত্যাকান্ডের ঘটনা আর নেই। ২০০০ সালের ১২ জুলাই চট্রগ্রাম নগরীর বহদ্দারহাটের কাছে দিন দুপুরে ইসলামী ছাত্র শিবিরের ক্যাডারদের ব্রাশ ফায়ারে ৮ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী নিহত হন। ঐদিন চট্টগ্রাম গর্ভমেন্ট কমার্শিয়াল ইনিস্টিটিউটের সাবেক ভিপি ও সাবেক এ.জি.এসসহ ৮ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী দলীয় কর্মসূচীতে অংশ নেয়ার জন্য যাওয়ার পথে বহদ্দারহাটের কাছে তাদের মাইক্রোবাস থামিয়ে জামায়াত-শিবিরের সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে দিবালোকে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে।



এই ঘটনা সে সময় সারাদেশে ব্যাপক নিন্দার ঝড় উঠে। এইট মার্ডার হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। নারকীয় হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন ছাত্র সমাজ ফুলে ওঠে আন্দোলনে।  এ হত্যাকাণ্ডের মামলায় রায়ে এখনো কার্যকর হয় নি। এ নিয়ে সংঘটনের নেতাকর্মীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ  রয়েছে। ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, ২০০০ সালের ১২ জুলাই চট্টগ্রামের শেরশাহ পলিটেকনিক এলাকা থেকে মাইক্রোবাসে করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে  অংশ গ্রহণ করার জন্য বাকলিয়াস্থ সরকারি কমার্শিয়াল ইনস্টিটিউটে যাচ্ছিলেন। গাড়িটি বহদ্দারহাট পুকুরপাড় এলাকায় আসলে আরেকটি মাইক্রোবাস তাদের সামনে এসে গতিরোধ করে। গতিরোধ করার মুহূর্তের মধ্যেই ব্রাশফায়ার শুরু করে বর্বর শিবির ক্যাডাররা।


এ সময় গাড়ির ভেতরেই লুটিয়ে পড়েন এতে ছাত্রলীগের ছয় নেতা, তাদের মাইক্রোবাসের চালক ও একজন অটোরিকশার চালক। এ ঘটনায় নিহতরা হলেন সরকারি কমার্শিয়াল ইনস্টিটিউট (পলিটেকনিক এলাকাস্থ) ছাত্র সংসদের ভিপি হাসিবুর রহমান হেলাল, এজিএস রফিকুল ইসলাম সোহাগ, ইনস্টেটিউটের ছাত্র জাহাঙ্গীর হোসেন, বায়েজিদ বোস্তামী ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, শেরশাহ কলেজ ছাত্রলীগের সহসম্পাদক আবুল কাশেম, জাহিদ হোসেন এরশাদ, মাইক্রোবাস চালক মনু মিয়া এবং অটোরিকশা চালক কাশেম । এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়। পরে মামলাটি ‘এইট মার্ডার’ হিসাবে পরিচিতি লাভ করে। মামলায় আসামি করা হয় ২২ জনকে। বিচার চলাকালে ২ জন আসামি মারা যায়। ঘটনার আট বছর পর ২০০৮ সালের ২৭ মার্চ মামলাটির রায় দেন চট্টগ্রামের দ্বিতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ একরামুল হক চৌধুরী। রাষ্ট্রপরে ৪৩ জন সাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ ও জেরা শেষে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত দায়রা জজ ২০০৮ সালে ৪ জনকে মৃত্যুদণ্ডিত দণ্ডিত করে রায় দেন। রায়ে ৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। রায়ে শিবির ক্যাডার সাজ্জাদ হোসেন খান, মো. আলমগীর কবির ওরফে বাট্টা আলমগীর, মো. আজম ও মো. সোলায়মানকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। এ ছাড়া আরও তিনজন শিবির ক্যাডার হাবিব খান, এনামুল হক ও আবদুল কাইয়ুমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।


যাবজ্জীবন দণ্ডাদেশ পাওয়া আসামিরা এখনো পলাতক।মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে সাজ্জাদ হোসেন খান ভারতের কারাগারে, অন্য তিনজন দেশের কারাগারে বন্দী রয়েছে। এই ফাঁসির রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন চার আসামি। একইসঙ্গে ফাঁসির রায় অনুমোদনের জন্য তা ডেথ রেফারেন্স আকারে হাইকোর্টে আসে। এ মামলায় পরবর্তীতে ২০১৪ সালের এপ্রিলে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আসামিদের আপিল ও ডেথ রেফারেন্সের শুনানি শেষে বিচারপতি মো. আব্দুল হাই ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেব নাথের ডিভিশন বেঞ্চ চট্টগ্রামের বহদ্দারহাটে বহুল আলোচিত ‘এইট মার্ডার’ হত্যা মামলায় ফাঁসির ৪ আসামিকে খালাস দেন হাইকোর্ট।  রায়ে খালাসপ্রাপ্তরা হলেন, সাজ্জাদ হোসেন খান ওরফে সাজ্জাদ, আলমগীর কবির ওরফে মানিক, আজম ও মো. সোলায়মান। ১৮ বছর পর আজকের এই দিনে বাংলাদেশ প্রেস পরিবার সেইদিনের চরম নৃশংসতার শিকার ৮ ছাত্রনেতার স্মৃতির প্রতি জানায় বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলী। একি সাথে আলোচিত এইট মার্ডারের বিচারিক কার্যক্রম পুনরায় রিভিউ করে প্রকৃত দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান এবং যুদ্ধপরাধীদের রাজনৈতিক সংগঠন জামাত এবং ছাত্রসংগঠন ইসলামী ছাত্র শিবিরের সকল প্রকারের রাজনীতি সরকারি নির্বাহী আদেশে আজীবন নিষিদ্ধ করার দাবী জানাই। পরিশেষে বলি---
           "এদেশ আমাদের, খুনী রাজাকারের না"

আরও পড়ুন

ইয়াবাকারবারিদের আত্মসমর্পণ: সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা ও ৩০ অস্ত্র জমা

ইয়াবাকারবারিদের আত্মসমর্পণ: সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা ও ৩০ অস্ত্র জমা

আত্মসমর্পণ করেছেন টেকনাফের ১০২ জন ইয়াবাকারবারি। শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ...

পায়রায় ৩৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে সিমেন্সের সঙ্গে চুক্তি

পায়রায় ৩৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে সিমেন্সের সঙ্গে চুক্তি

জার্মানিতে সিমেন্স এজির সঙ্গে যৌথ উন্নয়ন চুক্তি স্বাক্ষর করেছে নর্থ ...

আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো যোবায়েরপন্থিদের ইজতেমা

আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো যোবায়েরপন্থিদের ইজতেমা

টুঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে আখেরি মোনাজাতে দেশ ও জাতির কল্যাণ ...

প্রধানমন্ত্রীকে ৯৮ দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার অভিনন্দন

প্রধানমন্ত্রীকে ৯৮ দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার অভিনন্দন

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিপুল বিজয় অর্জনের ...

মুজিব বর্ষ উদযাপন কমিটিতে সালাউদ্দিন-মাশরাফি

মুজিব বর্ষ উদযাপন কমিটিতে সালাউদ্দিন-মাশরাফি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় কমিটিতে ডাক পেয়েছেন ...

ড. ওয়াজেদ মিয়ার জন্মবার্ষিকী আজ

ড. ওয়াজেদ মিয়ার জন্মবার্ষিকী আজ

বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ জামাতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী পরমাণু বিজ্ঞানী ...

থেমে গেল অবিনশ্বর কবিকণ্ঠ

থেমে গেল অবিনশ্বর কবিকণ্ঠ

'কবিতা তো কৈশোরের স্মৃতি। সেতো ভেসে ওঠা ম্লান/ আমার মায়ের ...

দেশে ফিরে আসার শর্তে শিক্ষাবৃত্তি দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

দেশে ফিরে আসার শর্তে শিক্ষাবৃত্তি দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার “প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ ২০১৯” ঘোষণা করেছে যার আওতায় ...