রাজনীতি

  • গাসিক নির্বাচন নিয়ে জনমনে সংশয় রয়েছে : বাংলাদেশ ন্যাপ

    গাসিক নির্বাচন নিয়ে জনমনে সংশয় রয়েছে : বাংলাদেশ ন্যাপ

  • উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে  আবারও আ.লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে  : আলহাজ্ব খবিরুজ্জামান বাচ্চু

    উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে আবারও আ.লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে : আলহাজ্ব খবিরুজ্জামান বাচ্চু

  • নীল নক্সা বাস্তবায়নে 'পারাবার' নাম ধারণ করে আবারো সক্রিয় জামাত-শিবির

    নীল নক্সা বাস্তবায়নে 'পারাবার' নাম ধারণ করে আবারো সক্রিয় জামাত-শিবির

  • বিকেলে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

    বিকেলে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

  • “আমার কর্মী ও নেতাকর্মীদের নতুন কৌশলে গ্রেফতার করা হচ্ছে"

    “আমার কর্মী ও নেতাকর্মীদের নতুন কৌশলে গ্রেফতার করা হচ্ছে"

এভাবে দেশ চলতে পারে না

প্রকাশ: ০৩ মার্চ ২০১৮

বাংলাদেশ প্রেস ডেস্ক

দেশে এক ব্যক্তির একদলীয় শাসন চলছে মন্তব্য করে গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, এভাবে একটি দেশ চলতে পারে না। পাড়ায় পাড়ায় জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এ জন্য দেশের বিভিন্ন স্থানে যাবেন তিনি।


শুক্রবার স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি। স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন দিবস উদযাপন কমিটির আয়োজনে সভায় সভাপতিত্ব করেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।


ড. কামাল হোসেন বলেন, ২০১৪ সালের মতো নির্বাচন কেউ চায় না। সবাই চায় একটি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন। সবাই যা চায়, তার অনেক পথ সংবিধানে আছে। এমন নির্বাচন হতে হবে যেন, জনগণ মালিকের ভূমিকা পালন করতে পারে।


সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য জনগণকে অবশ্যই সচেতন হতে হবে বলে মনে করেন এই সংবিধান বিশেষজ্ঞ। তিনি বলেন, ‘কারণ তারাই (জনগণ) ক্ষমতার মালিক। সেই মালিক যদি সচেতন না হয় তাহলে কোনো কিছুই করা সম্ভব নয়। দেশের মালিক হিসাবে পাড়ায় পাড়ায় ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’


জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে, তাদের কথা শুনতে তিনি দেশের বিভিন্ন স্থানে যাবেন উল্লেখ করে গণফোরাম সভাপতি বলেন, ‘দেশের জনগণের মধ্যে গণজাগরণ সৃষ্টি করে জনগণের দাবি আদায় করে নেওয়া হবে। গণজাগরণের মধ্য দিয়ে জনগণের ঐক্য প্রতিষ্ঠা করতে পারলে কোনো শক্তিই তাদের বঞ্চিত করতে পারবে না।’


আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ডা. এ কিউ এম  বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, ‘সামনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করুন। আপনারাও নির্বাচনে আসুন, আমরাও আসব। ক্ষমতার রাজনীতি বন্ধ করুন। বঙ্গবন্ধুকে ভালোবাসি বলে জিয়াকে ঘৃণা করতে হবে- এটা ভুল ধারণা।’


দুর্নীতি ও ঘুষই দেশের প্রধান সমস্যা উল্লেখ করে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘প্রতিটি মন্ত্রণালয়েই বিভিন্ন কাজে ঘুষ দিতে হয়। আমি বিশ্বাস করি প্রধানমন্ত্রীও তা জানেন। তারপরও কেন বন্ধ হয় না? কেন প্রতিটি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় ?’


সভায় আ স ম আব্দুর রব বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হচ্ছেন স্বাধীনতার স্থপতি। আর সিরাজুল আলম খান হচ্ছেন রূপকার। একটা দেশের স্বাধীনতার জন্য অনেকের প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ অবদান থাকে। কিন্তু সিরাজুল আলম খানসহ অনেকের অবদান আজ স্বীকার করা হয় না।’


এ ছাড়া আরও বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ।


১৯৭১ সালের ২ মার্চ তৎকালীন ডাকসু নেতাদের উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনে প্রথম জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।  ছাত্র সমাবেশের নেতৃত্বে ছিলেন নূরে আলম সিদ্দিকী, আব্দুল কুদ্দুস মাখন, শাহজাহান সিরাজ, আ স ম আব্দুর রব। ২ মার্চ পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত ঘোষিত হওয়ায় সকাল থেকেই দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষ ঢাকার রাজপথে অবস্থান নেয়, ঢাকা পরিণত হয় মিছিলের নগরীতে। পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর জুলুম, নিগ্রহ, শোষণ আর নিপীড়নের বিরুদ্ধে ডাকসু নেতাদের উদ্যোগে নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ জড়ো হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়।

আরও পড়ুন

চট্টগ্রামে পিতার সামনে সন্তান হত্যার মূল আসামী তুষার সঙ্গি সহ ভারতে আটক

চট্টগ্রামে পিতার সামনে সন্তান হত্যার মূল আসামী তুষার সঙ্গি সহ ভারতে আটক

চট্টগ্রামে ঈদের ২য় দিন নগরির চট্টেশ্বরী রোড়ের মোড়ে পিতার সামনে ...

লালমনিরহাটের চার পুলিশ কর্মকর্তা পুরস্কৃত

লালমনিরহাটের চার পুলিশ কর্মকর্তা পুরস্কৃত

আইনশৃঙ্খলার উন্নতি সাধন, আসামি তামিল, মাদক জব্দ ও সেবাদানে রংপুর ...

নড়াইলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের দুর্দশা লাঘবে সরেজমিনে পরিদর্শন করলেন পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন পিপিএম

নড়াইলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের দুর্দশা লাঘবে সরেজমিনে পরিদর্শন করলেন পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন পিপিএম

পত্র-পত্রিকায় বিভিন্ন সময়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর চলমান নির্যাতন ও বর্বরতার ...

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বিদায়ী সেনাবাহিনীর প্রধানের শেষ সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বিদায়ী সেনাবাহিনীর প্রধানের শেষ সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন বিদায়ী সেনাবাহিনী ...

৩-০ গোলের ঘুরে দাঁড়ালো কলম্বিয়া

৩-০ গোলের ঘুরে দাঁড়ালো কলম্বিয়া

দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়ালো কলম্বিয়া। দেখিয়ে দিলো ল্যাটিন আমেরিকান ফুটবলের সৌন্দর্য। ...

গাজীপুরসহ অন্যান্য সিটি নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত ঢাকা বিএনপির, লন্ডনের না

গাজীপুরসহ অন্যান্য সিটি নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত ঢাকা বিএনপির, লন্ডনের না

গাজীপুরসহ বাকি তিনটি সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে প্রকাশ্য দ্বন্দ্বে জড়িয়ে ...

কুড়িগ্রাম-৩আসনে শেষ দিনে মনোনয়নপত্র

কুড়িগ্রাম-৩আসনে শেষ দিনে মনোনয়নপত্র

কুড়িগ্রাম-৩আসনের উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে জাতীয় পার্টি ও আওয়ামীলীগের ...

নির্বাচন নিয়ে সংলাপের কোনো প্রয়োজন নেই : খাদ্যমন্ত্রী

নির্বাচন নিয়ে সংলাপের কোনো প্রয়োজন নেই : খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন যথাসময়েই অবাধ, ...