• বিশ্বজিৎ দাস কে মনে আছে বাংলাদেশ?

    বিশ্বজিৎ দাস কে মনে আছে বাংলাদেশ?

  • বাসযোগ্য দেশের স্বপ্ন ও প্রতিরোধের আগুন

    বাসযোগ্য দেশের স্বপ্ন ও প্রতিরোধের আগুন

  • ওয়াজে নারীবিদ্বেষী মন্তব্যে বেড়েছে ধর্ষণ

    ওয়াজে নারীবিদ্বেষী মন্তব্যে বেড়েছে ধর্ষণ

  • যেভাবে জন বোল্টনের বুকে বিধল ইরানের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র!

    যেভাবে জন বোল্টনের বুকে বিধল ইরানের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র!

  • দেশে দেশে জাদুঘর

    দেশে দেশে জাদুঘর

কেন এই আত্মহত্যা?

প্রকাশ: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত

আত্মহত্যা কি প্রতিযোগিতা? না আত্মহত্যা কোনো প্রতিযোগিতা নয়। বরং আত্মহত্যা হলো মহাপাপ! তাহলে কেনো তারা তুচ্ছ তুচ্ছ কারণে আত্মহত্যা করে...? আত্মহত্যা কি এই ডিজিটাল যুগে আবার সব থেকে বড় ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে নাকি...? এটা দেখি এখন প্রায় সবাই করতে পারে। আসলে কি আত্মহত্যা করতে এর জন্য বিশেষ কিছুর প্রয়োজন হয় না, সেজন্য না তো আবার....? আত্মহত্যা করতে তো আবার ধনী-গরিব, ছেলে-মেয়ে বা অন্য কিছুর কোনো হিসাব নেই। যে কেউ যখন তখন আত্মহত্যা করতে পারে। এর জন্য তেমন কোনো বিশেষ কারণও লাগে না।

আসুন এবার না হয় একটু কথায় আসি....

হায়রে মানুষ! কেউ বাঁচার জন্য দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে রীতিমত যুদ্ধ করেই বেঁচে থাকে, আর সেখানে কেউ কেউ হেলায় তাদের জীবনটা হারায়। প্রেমের সমাপ্তি আত্মহত্যার অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন। তারা তাদের প্রেমিক/প্রেমিকাকে এতটাই ভালবাসে যেখানে তাদের জীবন আর মা-বাবার ভালোবাসাও ঠুনকো প্রমাণ করে। কয়েক বছরের পরিচিত প্রেমিক/প্রেমিকা এতটাই গুরুত্ত্বপূর্ণ তাদের কাছে, জন্ম দিয়েছে যে মা-বাবা তাদেরও কোনো স্থান নেই সেখানে। বাহ্! নিজের জীবনের থেকে, মা-বাবার ভালোবাসার থেকেও ঐ ছেলে/মেয়ে বড় হয়ে গেলো যারা কিনা তাদের সাথে বিচ্ছেদ করেছে!

আত্মহত্যা করে তারা কি পেলো? ঐ প্রেমিক/প্রেমিকা কি ফিরে গেছিলো তাদের কাছে? আর ফিরে গেলোও কি? তারাই তো জীবত নাই। তো আত্মহত্যা করে কি হলো?

পরীক্ষার ফলাফল খারাপ অথবা ফেল করলেও ইদানীং অনেকেই আত্মহত্যা/আত্মহত্যার চেষ্টা করে। আরে যেমন পরীক্ষা দিয়েছে তেমন ফল পেয়েছে, পরিক্ষক তো আর ইচ্ছে করে তাদের কম মার্ক/ফেল করায় নি। আর যদি করিয়েও থাকে তাহলেও কি তাদের আত্মহত্যার পরে পাশ/এ+ দিয়ে গেছে কেউ? অনেক পেপার পত্রিকায় রেজাল্টের দিন বা পরের দিন শুনা বা দেখা যায় রেজাল্ট খারাপ হয়েছে মেয়ে/ছেলে আত্মহত্যা করেছে। এখন পর্যন্ত জীবনের কিছুই দেখা হলো না আর সে এই জীবন হেলায় হারালো। 

ধিক্কার জানাই সেই সব মানুষদের যারা নিজের জীবনকে এভাবে তুচ্ছ করে। আরে যাই হয়ে যাক নিজের জীবনকে এভাবে হারানো উচিত না। আত্মহত্যাটা কখনোই সঠিক সিদ্ধান্ত নয়। 

যারা আত্মহত্যা করে তাদের জন্য অনেকেই দুঃখ প্রকাশ করে। কিন্তু আমাদদের কারই করা উচিত না, আমাদের তাদের জন্য কোনো  দুঃখ করা উচিত না। যে নিজেই নিজেকে ভালোবাসে না, নিজের কথা ভাবে না, নিজের জন্য খারাপ লাগে না, তার জন্য আমরা কেন  দুঃখ প্রকাশ করতে যাবো! তাদের জন্য আমাদের কেনোই বা কষ্ট হবে।

জীবনটা কোনো তাসের খেলা ঘর না যে যখন ইচ্ছা শেষ করে দেওয়া যায়।

আত্মহত্যা করে তারা কি পায়? আসলেই কি কিছু পায়? মা-বাবার সারা জীবনের কান্না, যার জন্য/যে কারণে আত্মহত্যা করেছে তার একটু আফসোস, একটু অপরাধ বোধ,কখনো কখনো অধিক মাত্রায় অপরাধ বোধ আর অনুশোচনায় সেই ব্যাক্তিও জ্বলে পুড়ে শেষ হয়ে যায়। সমাজের কিছু কিছু লোক বলবে ছেলেটা/মেয়েটা ভাল ছিলো, কেন যে এমন করলো! আর তার সোনার হরিণের চেয়েও মুল্যবান জীবনের সমাপ্তি। এর থেকে কি আর বেশি কিছু তারা পায়? যা কিছু হয়ে যাক আত্মহত্যা কখনো সঠিক সিদ্ধান্ত না, তাদের আত্মহত্যার দ্বারা বিশেষ কিছুই হয় না, আর যদি হয়ও তা উপভোগ করার জন্য তারা থাকে না। আমার এই কথা গুলো যারা আত্মহত্যা করেছে তাদের জন্য না, কারণ এই কারণেই নয় তাদের কবর থেকে তুলে এনেও বললেও কানে কিছুই হবে না, এটা আপনাদের জন্য যারা ভবিষ্যৎএ এমন কিছু করতে যাচ্ছেন। জীবনটাকে কখনো এভাবে হারানো উচিৎ না। গিয়ে দেখুন লক্ষ লক্ষ মানুষ বিছানায় মৃত্যু পথযাত্রী হয়েও বাঁচার জন্য লড়াই করে আর আপনারা( যারা আত্মহত্যা করবেন ভেবেছেন / যারা আত্মহত্যা করেছে) সম্পূর্ন সুস্থ থেকেও এই জীবনটাকে হারিয়ে ফেলেন। 

বেঁচে থাকুন, নিজেকে ভালোবাসুন, যে নিজেকে ভালোবাসে না সে কিভাবে অন্যকে ভালোবাসবে?, বেঁচে থেকে সঠিক সমাধানের চেষ্টা করুন। আর এমন সিদ্ধান্ত থেকে দূরে থাকুন।

পরবর্তী খবর পড়ুন : অরিত্রির আত্মহত্যাঃ প্রধান শিক্ষকসহ তিন শিক্ষক বরখাস্ত, এমপিও বাতিল


আরও পড়ুন

পথশিশুদের টাকা,খাবার দেওয়া নিষিদ্ধ করে আইন পাশ উগান্ডায়

পথশিশুদের টাকা,খাবার দেওয়া নিষিদ্ধ করে আইন পাশ উগান্ডায়

পথশিশুদের টাকা,খাবার দেওয়া নিষিদ্ধ করে আইন পাশ করা হল উগান্ডায়। ...

দক্ষিণ চীন সাগর নিয়ে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে আমেরিকাকে বেইজিং’র হুঁশিয়ারি

দক্ষিণ চীন সাগর নিয়ে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে আমেরিকাকে বেইজিং’র হুঁশিয়ারি

দক্ষিণ ও পূর্ব চীন সাগরে বেইজিং’র ‘বৈধ’ তৎপরতার কারণে দেশটির ...

২৫ জেলায় চলছে প্রাথমিকের প্রথম ধাপের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

২৫ জেলায় চলছে প্রাথমিকের প্রথম ধাপের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

২৫ জেলায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের ...

লিবিয়া থেকে ইতালিঃ  প্রাণে বেঁচে যাওয়া আরো তিন বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন

লিবিয়া থেকে ইতালিঃ প্রাণে বেঁচে যাওয়া আরো তিন বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন

লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবি থেকে প্রাণে বেঁচে ...

নবগঙ্গা নদীতে অবৈধ বালি উত্তোলনকালে দু’টি মেশিন পুড়িয়েছে

নবগঙ্গা নদীতে অবৈধ বালি উত্তোলনকালে দু’টি মেশিন পুড়িয়েছে

নড়াইলের মাউলি ইউনিয়নের চান্দেরচর এলাকায় নবগঙ্গা নদীতে অবৈধ ভাবে বালি ...

পীরের বাড়ি থেকে ফেরার পথে ২ ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা

পীরের বাড়ি থেকে ফেরার পথে ২ ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা

ঢাকার নবাবগঞ্জে মোটরসাইকেল আরোহী দুই ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা করেছে ...

কৃষকদের কাছ থেকে সরকারিভাবে সরাসরি কেনা শুরু

কৃষকদের কাছ থেকে সরকারিভাবে সরাসরি কেনা শুরু

ধানের জেলা দিনাজপুরসহ বিভিন্ন জায়গায় কৃষকদের কাছ থেকে সরকারিভাবে ধান ...

মেঘনা ও গোমতী দ্বিতীয় সেতু উদ্বোধন কাল

মেঘনা ও গোমতী দ্বিতীয় সেতু উদ্বোধন কাল

নির্ধারিত ব্যয়ের চেয়ে ৫ থেকে ৬শ’ কোটি টাকা কম খরচে ...