• ভালোবাসা দিবস হোক অন্যায়-অসত্যের বিরুদ্ধে সেতুবন্ধন

    ভালোবাসা দিবস হোক অন্যায়-অসত্যের বিরুদ্ধে সেতুবন্ধন

  • বনবিভাগের মালি  শত কোটি টাকার মালিক!

    বনবিভাগের মালি শত কোটি টাকার মালিক!

  • মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ যোগ হওয়ার আলোচনা চলছে

    মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ যোগ হওয়ার আলোচনা চলছে

  • যেভাবে পাকিস্তানের অর্থনীতিকে পেছনে ফেলে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ

    যেভাবে পাকিস্তানের অর্থনীতিকে পেছনে ফেলে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ

  • 'তবুও আপনি খাবেন না'

    'তবুও আপনি খাবেন না'

কেন এই আত্মহত্যা?

প্রকাশ: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত

আত্মহত্যা কি প্রতিযোগিতা? না আত্মহত্যা কোনো প্রতিযোগিতা নয়। বরং আত্মহত্যা হলো মহাপাপ! তাহলে কেনো তারা তুচ্ছ তুচ্ছ কারণে আত্মহত্যা করে...? আত্মহত্যা কি এই ডিজিটাল যুগে আবার সব থেকে বড় ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে নাকি...? এটা দেখি এখন প্রায় সবাই করতে পারে। আসলে কি আত্মহত্যা করতে এর জন্য বিশেষ কিছুর প্রয়োজন হয় না, সেজন্য না তো আবার....? আত্মহত্যা করতে তো আবার ধনী-গরিব, ছেলে-মেয়ে বা অন্য কিছুর কোনো হিসাব নেই। যে কেউ যখন তখন আত্মহত্যা করতে পারে। এর জন্য তেমন কোনো বিশেষ কারণও লাগে না।

আসুন এবার না হয় একটু কথায় আসি....

হায়রে মানুষ! কেউ বাঁচার জন্য দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে রীতিমত যুদ্ধ করেই বেঁচে থাকে, আর সেখানে কেউ কেউ হেলায় তাদের জীবনটা হারায়। প্রেমের সমাপ্তি আত্মহত্যার অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন। তারা তাদের প্রেমিক/প্রেমিকাকে এতটাই ভালবাসে যেখানে তাদের জীবন আর মা-বাবার ভালোবাসাও ঠুনকো প্রমাণ করে। কয়েক বছরের পরিচিত প্রেমিক/প্রেমিকা এতটাই গুরুত্ত্বপূর্ণ তাদের কাছে, জন্ম দিয়েছে যে মা-বাবা তাদেরও কোনো স্থান নেই সেখানে। বাহ্! নিজের জীবনের থেকে, মা-বাবার ভালোবাসার থেকেও ঐ ছেলে/মেয়ে বড় হয়ে গেলো যারা কিনা তাদের সাথে বিচ্ছেদ করেছে!

আত্মহত্যা করে তারা কি পেলো? ঐ প্রেমিক/প্রেমিকা কি ফিরে গেছিলো তাদের কাছে? আর ফিরে গেলোও কি? তারাই তো জীবত নাই। তো আত্মহত্যা করে কি হলো?

পরীক্ষার ফলাফল খারাপ অথবা ফেল করলেও ইদানীং অনেকেই আত্মহত্যা/আত্মহত্যার চেষ্টা করে। আরে যেমন পরীক্ষা দিয়েছে তেমন ফল পেয়েছে, পরিক্ষক তো আর ইচ্ছে করে তাদের কম মার্ক/ফেল করায় নি। আর যদি করিয়েও থাকে তাহলেও কি তাদের আত্মহত্যার পরে পাশ/এ+ দিয়ে গেছে কেউ? অনেক পেপার পত্রিকায় রেজাল্টের দিন বা পরের দিন শুনা বা দেখা যায় রেজাল্ট খারাপ হয়েছে মেয়ে/ছেলে আত্মহত্যা করেছে। এখন পর্যন্ত জীবনের কিছুই দেখা হলো না আর সে এই জীবন হেলায় হারালো। 

ধিক্কার জানাই সেই সব মানুষদের যারা নিজের জীবনকে এভাবে তুচ্ছ করে। আরে যাই হয়ে যাক নিজের জীবনকে এভাবে হারানো উচিত না। আত্মহত্যাটা কখনোই সঠিক সিদ্ধান্ত নয়। 

যারা আত্মহত্যা করে তাদের জন্য অনেকেই দুঃখ প্রকাশ করে। কিন্তু আমাদদের কারই করা উচিত না, আমাদের তাদের জন্য কোনো  দুঃখ করা উচিত না। যে নিজেই নিজেকে ভালোবাসে না, নিজের কথা ভাবে না, নিজের জন্য খারাপ লাগে না, তার জন্য আমরা কেন  দুঃখ প্রকাশ করতে যাবো! তাদের জন্য আমাদের কেনোই বা কষ্ট হবে।

জীবনটা কোনো তাসের খেলা ঘর না যে যখন ইচ্ছা শেষ করে দেওয়া যায়।

আত্মহত্যা করে তারা কি পায়? আসলেই কি কিছু পায়? মা-বাবার সারা জীবনের কান্না, যার জন্য/যে কারণে আত্মহত্যা করেছে তার একটু আফসোস, একটু অপরাধ বোধ,কখনো কখনো অধিক মাত্রায় অপরাধ বোধ আর অনুশোচনায় সেই ব্যাক্তিও জ্বলে পুড়ে শেষ হয়ে যায়। সমাজের কিছু কিছু লোক বলবে ছেলেটা/মেয়েটা ভাল ছিলো, কেন যে এমন করলো! আর তার সোনার হরিণের চেয়েও মুল্যবান জীবনের সমাপ্তি। এর থেকে কি আর বেশি কিছু তারা পায়? যা কিছু হয়ে যাক আত্মহত্যা কখনো সঠিক সিদ্ধান্ত না, তাদের আত্মহত্যার দ্বারা বিশেষ কিছুই হয় না, আর যদি হয়ও তা উপভোগ করার জন্য তারা থাকে না। আমার এই কথা গুলো যারা আত্মহত্যা করেছে তাদের জন্য না, কারণ এই কারণেই নয় তাদের কবর থেকে তুলে এনেও বললেও কানে কিছুই হবে না, এটা আপনাদের জন্য যারা ভবিষ্যৎএ এমন কিছু করতে যাচ্ছেন। জীবনটাকে কখনো এভাবে হারানো উচিৎ না। গিয়ে দেখুন লক্ষ লক্ষ মানুষ বিছানায় মৃত্যু পথযাত্রী হয়েও বাঁচার জন্য লড়াই করে আর আপনারা( যারা আত্মহত্যা করবেন ভেবেছেন / যারা আত্মহত্যা করেছে) সম্পূর্ন সুস্থ থেকেও এই জীবনটাকে হারিয়ে ফেলেন। 

বেঁচে থাকুন, নিজেকে ভালোবাসুন, যে নিজেকে ভালোবাসে না সে কিভাবে অন্যকে ভালোবাসবে?, বেঁচে থেকে সঠিক সমাধানের চেষ্টা করুন। আর এমন সিদ্ধান্ত থেকে দূরে থাকুন।

আরও পড়ুন

দেশে ফিরে আসার শর্তে শিক্ষাবৃত্তি দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

দেশে ফিরে আসার শর্তে শিক্ষাবৃত্তি দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার “প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ ২০১৯” ঘোষণা করেছে যার আওতায় ...

শিক্ষা ও মেধাকে প্রাধান্য দিয়ে আমাদের এগোতে হবে : মোস্তাফা জব্বার

শিক্ষা ও মেধাকে প্রাধান্য দিয়ে আমাদের এগোতে হবে : মোস্তাফা জব্বার

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, অস্ত্র আর ...

নির্বাচনে কারচুপি হলে কেন প্রতিহত করলেন না : বিএনপিকে নাসিম

নির্বাচনে কারচুপি হলে কেন প্রতিহত করলেন না : বিএনপিকে নাসিম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ করে বিএনপির প্রার্থীদের মামলা প্রসঙ্গে ...

অভিন্ন পদ্ধতিতে হবে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ

অভিন্ন পদ্ধতিতে হবে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরকারি শিক্ষকের আদলে অভিন্ন পদ্ধতিতে উপাধ্যক্ষ, অধ্যক্ষ ...

‘ভালোবাসা দিবসের ঠিক ৯ মাস পর কেন শিশু দিবস?’

‘ভালোবাসা দিবসের ঠিক ৯ মাস পর কেন শিশু দিবস?’

বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের ঠিক ৯ মাস তিন দিন পর কেন ...

সবচেয়ে দ্রুত গতিসম্পন্ন ট্রেন এসে পৌঁছেছে দেশে

সবচেয়ে দ্রুত গতিসম্পন্ন ট্রেন এসে পৌঁছেছে দেশে

দেশের বৃহত্তম রেলওয়ে কারখানা সৈয়দপুরে পৌঁছেছে ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা ...

তিন দিনে ৪ মুসল্লির মৃত্যু বিশ্ব ইজতেমার মাঠে

তিন দিনে ৪ মুসল্লির মৃত্যু বিশ্ব ইজতেমার মাঠে

গেল তিন দিনে চার মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে টঙ্গীর তুরাগতীরে বিশ্ব ...

জামায়াত বিলুপ্তির পরামর্শ দিয়ে ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগ

জামায়াত বিলুপ্তির পরামর্শ দিয়ে ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগ

জামায়াত ইসলামিকে বিলুপ্ত ঘোষণা ও ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে অবস্থান ...