• ২০ জন নিয়ে ঝটিকা মিছিল  রিজভীর, লজ্জিত ফখরুল চাইবেন ব্যাখ্যা

    ২০ জন নিয়ে ঝটিকা মিছিল রিজভীর, লজ্জিত ফখরুল চাইবেন ব্যাখ্যা

  • চট্টগ্রামে কাস্টমস কর্তাদের ১১ কোটিপতি স্ত্রী

    চট্টগ্রামে কাস্টমস কর্তাদের ১১ কোটিপতি স্ত্রী

  • সুবর্ণচরের ধর্ষণ ও গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ একই সূত্রে গাঁথা

    সুবর্ণচরের ধর্ষণ ও গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ একই সূত্রে গাঁথা

  • ফখরুল! বিএনপি কর্মীরাই আপনাকে পেটাবে : রিজভী

    ফখরুল! বিএনপি কর্মীরাই আপনাকে পেটাবে : রিজভী

  • ইউপি চেয়ারম্যানদের কার্যক্রমে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে

    ইউপি চেয়ারম্যানদের কার্যক্রমে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মালিকানা নিয়ে কোনো অস্পষ্টতার সুযোগ নেই

প্রকাশ: ১৬ মে ২০১৮     আপডেট: ১৬ মে ২০১৮

বাংলাদেশ প্রেস

সফলভাবে জিওস্টেশনারি যোগাযোগ স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ বর্তমানে ৫৭তম দেশ হিসেবে স্যাটেলাইট ক্ষমতাধর দেশ হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে বিশ্বের বুকে। এটি একদিকে যেমন জাতীয় গৌরবের বিষয় অন্যদিকে দেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রেও একটি মাইলফলক হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি যে, বিএনপির সিনিয়র নেতা থেকে শুরু করে তাদের সর্বোচ্চ নেতৃত্ব বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট নিয়ে বিভ্রান্তিমূলক তথ্য ছড়াচ্ছেন।


বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের মালিকানা দুইজন ব্যক্তির কাছে চলে গেছে। বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো কিছু বলার দায়িত্ব যেহেতু মির্জা ফখরুল ইসলামের তাই আমরা ধরেই নিতে পারি এটা বিএনপির অফিসিয়াল বক্তব্য। মির্জা ফখরুলের বক্তব্যের পর উন্মুক্ত সব প্রমাণাদি ঘেটে দেখে নিতে পারি আমরা, আসলে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মালিকানা কার হাতে রয়েছে।


প্রথমত, একথা স্পষ্ট করে বলা যায় যে, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের মালিকানা বাংলাদেশের হাতেই রয়েছে এবং এর পরিচালনাও বাংলাদেশই করবে। স্যাটেলাইটটি বানিয়েছে ফ্রান্স, উৎক্ষেপণ করেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং উৎক্ষেপণের জন্য মহাকাশে অরবিট স্লট নির্দিষ্ট সময়ের জন্য কেনা হয়েছে রাশিয়ার কাছ থেকে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সঙ্গে এই তিন দেশের খুব নিবিড় সংশ্লিষ্টতা থাকলেও সব কিছুই হয়েছে অর্থের বিনিময়ে। তাদের কাউকেই বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের মালিকানা দাবি করার কোনো প্রকার সুযোগ নেই।


ফ্রান্সের কোম্পানি থ্যালেস অ্যালেনিয়া বাংলাদেশ সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী অর্থের বিনিময়ে স্যাটেলাইটটি বানিয়ে দিয়েছে কারণ এটা তারা সব সময় করে থাকে এবং এর সঙ্গে প্রয়োজনীয় গ্রাউন্ড স্টেশনটিও তাদের তৈরি করা। মার্কিন কোম্পানি স্পেসএক্স তাদের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির রকেট দিয়ে এটাকে মহাকাশে উৎক্ষেপণ করেছে। সেটিও অর্থের বিনিময়ে এবং উৎক্ষেপণের সঙ্গে আনুষাঙ্গিক কাজও তারা করেছে। এর পাশাপাশি রাশিয়ান কোম্পানি ইন্টার স্পুটনিক বাংলাদেশকে ভাড়ায় মহাকাশে স্যাটেলাইটের জন্য নির্দিষ্ট কক্ষপথ বা অরবিটাল স্লট দিয়েছে। কাজেই সব কাজই তারা করেছে অর্থের বিনিময়ে বা ভাড়ায়। কিন্তু স্যাটেলাইটটির মালিকনা এবং পরিচালনার নিয়ন্ত্রণ থাকছে বাংলাদেশ সরকারের হাতে। এর জন্য বাংলাদেশের গাজীপুর এবং বেতবুনিয়ায় স্যাটেলাইটের সিগন্যাল ধরতে গ্রাউন্ড স্টেশন তৈরি করেছে বাংলাদেশ নিজেই।


দ্বিতীয়ত, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট পরিচালনার জন্য বাংলাদেশ সরকার পৃথক একটি কোম্পানি তৈরি করেছে যার নাম, ‘ বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড (বিসিএসসিএল)’। বিসিএসসিএল প্রতিষ্ঠিত হয় ২০১৭ সালের ১৫ আগস্ট। ৫ হাজার কোটি টাকার অনুমোদিত মূলধনের এই কোম্পানি ৫০০ কোটি টাকা পরিশোধ করেছে। এই কোম্পানির প্রাথমিক শেয়ারের দাম ১০ টাকা এবং প্রাথমিক পর্যায়ে প্রতিটি পরিচালক ২০০ শেয়ার কিনেছে। ২০১৭ সালের জুলাইতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকের সিন্ধান্ত অনুযায়ী বিসিএসসিএল প্রতিষ্ঠিত হয়।


তবে ‘বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড’ বা বিসিএসসিএল তাদের কমার্শিয়াল সাপোর্টের দিকটা দেখার জন্য এক বা একাধিক কোম্পানিকে তালিকাভুক্ত করতে চায়। আর বেক্সিমকো ‘বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড’কে কমার্শিয়াল সাপোর্ট দেওয়ার জন্য তালিকভুক্ত হতে আবেদন করেছে মাত্র, এখানেই ঘটনার ইতি। অথচ সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে বেক্সিমকোকে স্যাটেলাইটের মালিক বানিয়ে দেয়া হচ্ছে যা শুধু মিথ্যাচারই নয় অবাস্তবও বটে।


কাজেই কাগজে কলমে শুধু নয়, বাস্তবতার নিরিখেও স্যাটেলাইটটির মালিকানা ও পরিচালনার দায়িত্বে থাকবে বাংলাদেশ সরকার। সুতরাং, এই বিষয় নিয়ে মিথ্যাচার করে বিএনপি ও তাদের সমর্থকরা খুব একটা সুবিধা করতে পারবে বলে মনে করেন না সংশ্লিষ্টরা। কেননা বিএনপির দাবি করা ভুল তথ্য তথ্য- প্রযুক্তির এই যুগে বাস্তবসম্মত নয়।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দর্শনে এ কোন বাংলাদেশকে দেখছি!

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দর্শনে এ কোন বাংলাদেশকে দেখছি!

আমি জানিনা কোন ভাষায় লিখলে সত্যিকারভাবে পরিবর্তিত বাংলাদেশের ছবি অঙ্কন ...

মেঘনায় ট্রলারডুবি, এখনো নিখোঁজ ২০

মেঘনায় ট্রলারডুবি, এখনো নিখোঁজ ২০

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার মেঘনা নদীতে তেলবাহী ট্যাংকারের ধাক্কায় মাটিবোঝাই ইঞ্জিচালিত ...

টিআইবির প্রতিবেদন ‘একপেশে’, ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ : তথ্যমন্ত্রী

টিআইবির প্রতিবেদন ‘একপেশে’, ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ : তথ্যমন্ত্রী

একদাশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে টিআইবির প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনকে ‘একপেশে’ ...

অবৈধ ভর্তির অভিযোগ: ভিকারুননিসায় দুদকের অভিযান

অবৈধ ভর্তির অভিযোগ: ভিকারুননিসায় দুদকের অভিযান

অবৈধভাবে ভর্তির অভিযোগে ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজে অভিযান চালিয়েছে ...

সৈয়দ আশরাফের আসন নিয়ে কী করবে সংসদ-ইসি?

সৈয়দ আশরাফের আসন নিয়ে কী করবে সংসদ-ইসি?

আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে কিশোরগঞ্জ-১ আসন নিয়ে ...

সেই শাহনাজের চুরি যাওয়া স্কুটি উদ্ধার

সেই শাহনাজের চুরি যাওয়া স্কুটি উদ্ধার

উবার মোটোতে বাইক চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করা নারী বাইকচালক শাহনাজ ...

দলীয় খরচে তৃণমূলে কার্যালয় করছে আওয়ামী লীগ

দলীয় খরচে তৃণমূলে কার্যালয় করছে আওয়ামী লীগ

যেসব জেলা, মহানগর ও উপজেলা পর্যায়ে আওয়ামী লীগের নিজস্ব জমি ...

নওগাঁয় ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন নয়া খাদ্যমন্ত্রী

নওগাঁয় ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন নয়া খাদ্যমন্ত্রী

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের খাদ্য মন্ত্রণালয়ের নবনিযুক্ত খাদ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন ...