প্রাকৃতিক উপায়ে কমান পেটের অতিরিক্ত চর্বি

প্রকাশ: ৩০ জুন ২০২০ |

লাইফস্টাইল ডেস্ক, বাংলাদেশ প্রেস





পেটের অতিরিক্ত চর্বি বা ফ্যাটি লিভার স্বাস্থ্যের জন্য মোটেও ভালো নয়। অতিরিক্ত চর্বির কারণে শরীরে বাসা বাধে বিভিন্ন রোগ।



তবে পেটে অতিরিক্ত চর্বি জমতে থাকলেও এর প্রাথমিক লক্ষণগুলো আলাদা করে চেনার খুব একটা উপায় নেই। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আলট্রাসনোগ্রাম করাতে গিয়েই এ সমস্যা ধরা পড়ে।


চিকিৎসকদের মতে, যকৃৎ বা লিভারে একটা নির্দিষ্ট মাত্রায় চর্বি থাকাটা স্বাভাবিক। তবে পেটে নির্দিষ্ট মাত্রার চেয়ে ৫-১০ শতাংশ বেশি হলেই তা ফ্যাটি লিভার।


ফ্যাটি লিভার দুই প্রকার। অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার ডিজিজ ও নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার ডিজিজ।


মাত্রাতিরিক্ত মদ্যপানের কারণে যকৃৎ বা লিভারে যে অতিরিক্ত চর্বি জমা হয় তাকে অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার ডিজিজ বলা হয়।


নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার ডিজিজ কোনো ধরনের ওষুধ না খেলেও ভালো হয়ে যায়। তবে খাদ্যাভ্যাস বা জীবনযাত্রায় পরিবর্তন আনতে হবে।


প্রাকৃতিক উপায়ে পেটের অতিরিক্ত চর্বি কমানোর উপায়-



মধু ও লেবুর রস


পেটের অতিরিক্ত চর্বি নিয়ন্ত্রণে আনা খুব কঠিন কাজ নয়। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এক গ্লাস লেবু আর মধু মিশিয়ে খেয়ে নিন। এতে পেটের অতিরিক্ত চর্বি কমবে।


লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। লেবুতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট লিভারে এক ধরনের এনজাইম তৈরি করে, যা লিভারের চর্বি গলাতে সাহায্য করে। এক মাস নিয়ম করে লেবু ও মধুর মিশ্রণ খেলে উপকার পাবেন।


অ্যাপল সাইডার ভিনেগার


পেটের অতিরিক্ত চর্বি কমাতে অ্যাপল সাইডার ভিনেগার খুব ভালো কাজ করে।


ভিনেগার লিভারের পাশে জমে থাকা চর্বি কমিয়ে ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।


এক গ্লাস গরম পানিতে এক চামচ অ্যাপল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এর সঙ্গে সামান্য মধু মেশাতে পারেন। দিনে দুবার এক গ্লাস খেতে পারেন। তবে সকালে খালি পেটে খাওয়াটাই বেশি উপকার।


মাসখানেক নিয়ম মেনে এ মিশ্রণ সেবন করলে ফ্যাটি লিভারের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে আসবে। তবে খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।