দিনে পাঁচ মিনিট এই নিয়ম মানলেই মেদ থাকবে না

প্রকাশ: ২৪ জানুয়ারী ২০২০ |

লাইফস্টাইল ডেস্ক

শরীরে জমে যাওয়া মেদ ঝরানোর মতো প্রয়োজনীয় ঘাম ঝরানোর সময় অনেকেরই থাকে না। সেজন্য শরীরের ওজন হু হু করে বেড়ে যায়। মাঝে মাঝে ডায়েট করে মেদ নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসার চেষ্টা করলেও সেই ডায়েট একনাগাড়ে মেনে চলাও কঠিন হয়ে পড়ে।

এমন সমস্যায় ত্রাতা হয়ে উঠতে পারে মাত্র পাঁচ মিনিট সময়। পাঁচ মিনিটের অভ্যাসে মেদ জমার পথে বাধা হয়ে উঠতে পারে। এককথায় একে বলে ‘দ’ হয়ে দাঁড়ানো। ব্যায়ামের পরিভাষায় স্কোয়াট। 

চেয়ারে বসার মতো করে হাঁটু ভাঁজ করে কোমর ও পিঠ সোজা রেখে দাঁড়ানোকেই স্কোয়াট বলে। এই সময় হাত দু’টো সামনের দিকে টানটান করে ছড়িয়ে দিতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রতিদিন শরীরচর্চার সময় না পেলেও নিয়ম করে মিনিট পাঁচেক স্কোয়াটে শরীরের অনেকটা উপকার হয়। স্কিপিং, দৌড়ানো, হাঁটাহাঁটিতে পায়ের পেশীর যে উপকার হয়, স্কোয়াট তার অনেকটাই পুষিয়ে দেয়। কোমর ও পায়ের পেশীকে শক্তসমর্থ করে স্কোয়াট।

ফিটনেস বিশেষজ্ঞরা আরো বলছেন, শুধু পেশীর জোর বাড়ানোই এর একমাত্র কাজ নয়। টেস্টোস্টেরন ও গ্রোথ হরমোন ক্ষরণে বিশেষ কার্যকর এই ব্যায়াম। যার ফলে পেশীর বৃদ্ধি ও ভর নিয়ন্ত্রণে থাকে।

দীর্ঘ দিন ধরে এই ব্যায়াম অভ্যাসের ফলে কথায় কথায় পেশীতে টান, গাঁটে ব্যথা, একটু দৌড়ঝাঁপেই পেশীর ব্যথার মতো অসুবিধা দূর হয়। প্রতিদিন এমন ব্যায়ামে শরীর সারা দিন সতেজ তো থাকেই, সঙ্গে শরীরের কার্যক্ষমতা বেড়ে যায় কয়েক গুণ। দেহের ভারসাম্য, গতিশীলতা সব কিছুকেই স্বাভাবিক করতে সক্ষম এই ব্যায়াম।