আন্তর্জাতিক

আরও মহামারি ‘আসছে’

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২০ |

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ■ বাংলাদেশ প্রেস

করোনাভাইরাস মহামারিই শেষ নয়। বরং এই ভাইরাস অদূর ভবিষ্যতে মহামারির কারণ হতে পারে এমন অনেক ভাইরাসের অস্তিত্বের জানান দিয়েছে দাবি চীনের শীর্ষ পর্যায়ের এক ভাইরোলোজিস্টের।

করোনাভাইরাসের উৎসস্থল বাদুড় কি-না এটা নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাওয়া ভাইরাস বিশেষজ্ঞ শি জেনগ্লি চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারের মোদ্দা কথা- এটা কেবল শুরু। প্রাণীবাহিত এমন অনেক ভাইরাস আবিষ্কারের ‘দ্বারপ্রান্তে রয়েছে’ মানবজাতি।

আর কভিড-১৯ এর মতো এসব মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আরও বিস্তৃত পরিসরে আন্তর্জাতিক সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন শি জেনগ্লি। যদিও অনেকের অভিযোগ, চলমান করোনা সংকটের পেছনে তার দেশ চীনেরই হাত রয়েছে।

আলোচিত উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলোজি’র উপপরিচালক হিসেবে দায়িত্বে থাকা শি জেনগ্লি বাদুড় নিয়ে গবেষণা করে সংবাদমাধ্যমে ‘বাদুড় নারী’ হিসেবে পরিচিতি পেয়ে গেছেন।

তার মতে, ভাইরাস নিয়ে যেসব গবেষণা চলছে সেসবে দেশগুলোর সরকার ও বিজ্ঞানীদের উদার থাকা দরকার, সহযোগিতা বাড়ানো দরকার। বিজ্ঞানে রাজনীতি ঢুকিয়ে দেওয়াটা ‘খুবই অনুতাপের’ বিষয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

“আমরা যদি পরবর্তী ভয়াবহ রোগ থেকে মানবজাতিকে রক্ষা করতে চাই, তাহলে আমাদেরকে অবশ্যই প্রকৃতিতে থাকা বন্য প্রাণীবাহিত অজানা ভাইরাসগুলো সম্বন্ধে জানার ব্যাপারে অবশ্যই এগিয়ে আসতে হবে। এসব ব্যাপারে আগেভাগে সতর্কতা জারি করতে হবে।”

“আমরা এসব নিয়ে গবেষণা না চালালে সম্ভবত আরও একটি মহামারি শুরু হয়ে যেতে পারে।”-যোগ করেন শি জেনগ্লি।

মহামারি ঘটাতে পারে সম্ভাব্য ভাইরাস নিয়ে তার সাক্ষাৎকারটি এমন সময় আসলো যখন গোটা বিশ্ব চলমান করোনাভাইরাস সংকট সামলাতেই ব্যতিব্যস্ত। বিশ্বজুড়ে এরই মধ্যে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৫ লাখ ছুঁই ছুঁই। মৃত্যু দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৪৬ হাজার।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পোস্পেসহ অনেকের অভিযোগ করোনাভাইরাস চীনের উহানের ল্যাব থেকেই বিস্তার লাভ করেছে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের এমন দাবি বার বার উড়িয়ে দিয়েছেন বেইজিং।

এমন অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন শিন জেনগ্লিও। জানিয়েছেন, তিনি যেসব ভাইরাস নিয়ে কাজ করেছেন এর একটির জেনেটিক বৈশিষ্ট্যও বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের সঙ্গে মিলে না।