শিরোনাম:

Thu 07 December 2017 - 06:18pm

৭ ডিসেম্বর নাসিরনগর হানাদার মুক্ত দিবস

Published by: নিউজ রুম এডিটর, বাংলাদেশ প্রেস

c5dc6d1991905c900f4dc7fdb32ff0bd.jpg

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া: ১৯৭১ সালের ৭ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর হানাদার মুক্ত দিবস। ওই দিনে নাসিরনগর আকাশে উড়ে ছিল লাল সবুজের পতাকা। তাই নাসিরনগরের ইতিহাসে এ দিনটি বিশেষভাবে স্মরণীয় বরণীয়। এ দিনে বীর মুক্তিযোদ্ধারা ও মুক্তিকামী জনতানাসিরনগরকে হানাদার মুক্ত করে। 

১৯৭১ সালের ১৫ নভেম্বর পাক হানাদার বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সৈন্য ও তাদেরএদেশীয় দোষর, রাজাকার, আলবদর ও আল সামছ বাহীনির সহযোগিতায়  উপজেলার ফুলপুর, নূরপুর, কুলিকুন্ডা, সিংহগ্রাম ও তিলপাড়া বাসীর উপর  নিষ্টুর অত্যাচার ও নির্যাতনশুরু করে।

 অগ্নি সংযোগ ও লুটপাট শুরু করে। পাক বাহিনী অমানবিক নির্যাতনে বহু লোক হয় হতাহত।৭ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা ও সংগ্রামী জনতা নাসিরনগর থানায় বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলণের মাধ্যমে নাসিরনগরকে পাক হানাদার মুক্তদিবস ঘোষনা করে। নাসিরনগর মুক্ত দিবস উপলক্ষে স্বাধীনতার ৪৬ বছর পর আজই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে আনন্দ র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বৃহস্পতিবারউপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের যৌথ উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশাসক ও উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজ্বী আবদুল বাকীর পরিচালনায় সভায় মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আজাহারুল হক,বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজ্বী নুরুল ইসলাম,হাফিজুর রহমান,শহীদ মিয়া ও দীনেশ চন্দ্র দাস প্রমূখ। 

পরে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশাসক ও উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ লিয়াকত আলীর নেতৃত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অংশগ্রহণে একটি আনন্দ র্যালি বের হয়।এসময় উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ডাঃ রাফিউদ্দিন আহমেদ,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা হামিদা লতিফ, সরকারি কর্মকর্তা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ উপস্থিত ছিলেন।


আরও পড়ুনঃ 
বাংলাদেশপ্রেস/০৭ ডিসেম্বর/এম ২৪

Facebook

মন্ত্যব্য করুন