সম্পাদকীয়

  • হঠাৎ কেন বানর জাতীয় সংগীতের ঘাড়ে?

    হঠাৎ কেন বানর জাতীয় সংগীতের ঘাড়ে?

  • বলেছিলাম চাকমা রাজাদের কে কোথায় খোঁজ নিন

    বলেছিলাম চাকমা রাজাদের কে কোথায় খোঁজ নিন

  • একটি মানচিত্র, এক টুকরো সবুজের বুকে লাল পতাকা আর একজন বঙ্গবন্ধু

    একটি মানচিত্র, এক টুকরো সবুজের বুকে লাল পতাকা আর একজন বঙ্গবন্ধু

  • ট্যানারি মালিকদের হাতে ব্যংক ঋণ ও আড়তদারদের সর্বস্ব?

    ট্যানারি মালিকদের হাতে ব্যংক ঋণ ও আড়তদারদের সর্বস্ব?

  • বঙ্গবন্ধুঃ আজীবন সংগ্রামী, স্বাধীনচেতা মহানায়ক

    বঙ্গবন্ধুঃ আজীবন সংগ্রামী, স্বাধীনচেতা মহানায়ক

'আওয়ামীলীগে'র ৪ মূলনীতি 'বাংলাদেশ সংবিধানে'র অলঙনীয় ৪ মূলস্তম্ভ

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৯     আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯

রুহুল আমিন মজুমদার, উপ-সম্পাদক ■ বাংলাদেশ প্রেস

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ যথাক্রমে (১) গনতন্ত্র (২) সমাজতন্ত্র (৩) ধর্মনিরপেক্ষতা (৪)বাঙ্গালী জাতীয়তাবাদ--এই চারটি মূলনীতির আলাদা আলাদা সজ্ঞা নির্ধারন পুর্বক অখন্ড পাকিস্তান রাষ্ট্রে সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

    উক্ত  ৪ মূলনীতি  উপর ভিত্তি করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সমগ্র পাকিস্তান রাষ্ট্রে আওয়ামীলীগ দলটির ক্রমবিকাশ ঘটেছিল। '৬৬ সালে পশ্চিমাদের শাসন শোষন, বঞ্চনা হতে বাঙ্গালী জাতির মুক্তির লক্ষ্যে আওয়ামীলীগ নেতা বঙ্গবন্ধু ৬দফা প্রনয়ন করেছিলেন। আওয়ামীলীগের দলীয় ৪ মুলনীতির উপর ভিত্তি করে পাকিস্তানের তৎসময়ের বিরাজমান সমাজে দলটির প্রসার ঘটেছিল। '৬৬সালে বঙ্গবন্ধুর প্রনীত ৬ দফা  রাজনৈতিক কর্মসূচি উপর  জনমত সংগ্রহ পুর্বক পাকিস্তান রাষ্ট্রের অভ্যন্তরে দলটি সর্ববৃহৎ এবং সর্বাধিক জনপ্রিয় রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছিল।

   অখন্ড পাকিস্তানের '৭০ এর অনুষ্ঠানেয় সর্বশেষ গনপরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দল হিসেবে একক সংখ্যাগরিষ্টতা অর্জন করে।গনতন্ত্রের ধারা এবং রীতিনীতি অনুযায়ী বিজীত দল আওয়ামীলীগ এবং বিজয়ী নেতা বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানের শাসনকায্য পরিচালনার একক অধিকার অর্জন করেন। গনতন্ত্রের সকল রীতিনীতি, বিধিবিধান  পদদলীত  করে, পশ্চিম পাকিস্তানী সেনা শাসকবর্গ বিজয়ী রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগ এবং তাঁর নেতা বঙ্গবন্ধুর হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করেননি। উপরুন্ত ২৫ মার্চ '৭১ এর কাল রাত্রিতে বাঙ্গালী জাতির মুক্তির আকাংক্ষা ও স্বাধীনতার স্বাদ নিচ্ছিন্ন করার লক্ষ্যে এক অসম সসস্ত্র যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়। 

   বাঙ্গালী জাতীর অবিসম্বর্ধিত মহান নেতা বঙ্গবন্ধু ঐ রাতেই বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষনা করেন এবং শেষ রক্ত বিন্দু উৎসর্গ করে বাঙ্গালী জাতি সত্বার নিজস্ব  ভুখন্ড 'বাংলাদেশ' হ'তে শত্রু সেনাদের বিতাড়িত করার নির্দেশ প্রদান করেন।তাঁর প্রদত্ত নির্দেশ, তাঁর অনুপস্থীতিতে জাতি অক্ষরে অক্ষরে পালন করে। ১৯৭১ এর ১৬ই ডিসেম্বর পাকিস্তানের সুসজ্জিত ৯৩ হাজার সেনাকে আত্মসমর্পনে বাধ্য করে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুয্য ছিনিয়ে আনে।

  উল্লেখ্য যে, তৎসময়ে অখন্ড পাকিস্তানে বহু রাজনৈতিক দলের বিচরণ লক্ষনীয় ছিল। অনেক রাজনৈতিক দল নিজস্ব দলীয় দৃষ্টিভঙ্গিতে জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামে ব্যাপৃত ছিল। অনেক রাজনৈতিক দল ও ব্যাক্তি বাঙ্গালী হওয়া সত্বেও পশ্চিম পাকিস্তানী শাসকবর্গের তাঁবেদারী করেছিল। ২৩ বছরে'র পাকিস্তান রাষ্ট্রে রাজনৈতিক বিবর্তনে বহু রাজনৈতিক দল ও ব্যাক্তির উপস্থিতি থাকা সত্বেও বঙ্গবন্ধুর ক্যারিসম্যাটিক নেতৃত্বে সকল রাজনৈতিক দল ও ব্যাক্তির অস্তিত্ব প্রায় ম্লান হয়ে পড়েছিল।

  তাঁর একমাত্র উদাহরণ, প্রতিতযষা রাজনীতিবীদ আওয়ামীলীগের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা পরবর্তিতে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি'র  মজলুম জননেতা মাওলানা ভাসানী।   তিনি এবং তাঁর সংগঠনের অস্বিত্ব রক্ষার্থে হোক বা অন্য যেকোন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই হোক  '৭০এর জাতীয় নির্বাচন বর্জন ও প্রতিরোধ করার আহব্বান জানিয়েছিলেন। তাঁর সেই আহব্বানে বাঙ্গালী জাতী সাড়া দেয়নি--"বরঞ্চ অনুষ্ঠানেয় নির্বাচনে স্বতঃস্ফুর্তভাবে জনগন ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে 'বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ' এবং তাঁর নেতা 'শেখ মুজিবুর রহমান'কে একচেটিয়া ভোট প্রদান করে।

  পাকিস্তানের পুর্বাঞ্চলের জনগনের একচেটিয়া ভোট প্রদান নিঃসন্দেহে  "বাংলাদেশের জনগনের স্বাধীনতা প্রাপ্তির স্পৃহার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে'ই বিশ্ব দরবারে স্বিকৃত হয়। দুরদর্শি আওয়ামীলীগ নেতা বঙ্গবন্ধু বিচক্ষনতার সহিত পুর্ববাংলার জনগনের জন আকাংক্ষাকে বাস্তবতায় রুপদান করতে কোনপ্রকার ক্রুটি করেননি।

 '৭০ এর পাকিস্তান গনপরিষদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আওয়ামীলীগের নিরঙ্কুস বিজয়ে আওয়ামীলীগের চার মুলনীতি পুর্ব বাংলার সর্বস্তরের গনমানুষের স্বাধীনতা সংগ্রামের আদর্শে পরিণত হয়। আওয়ামীলীগ নেতা বঙ্গবন্ধুর প্রনীত ৬ দফা বাঙ্গালী জাতীর মুক্তির সনদে রুপান্তর ঘটে এবং বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতীর একক নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত হন। স্বিকৃতভাবে  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের  একক নেতৃত্বে  '৭১ এ বাঙ্গালী জাতীর মহান মুক্তিযুদ্ধ পরিচালিত হওয়ায় সঙ্গতভাবে দলটি'র চার মুলনীতি  মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বা অঙ্গিকারে পয্যবসিত হয়।

  পরবর্তিতে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ পরিচালনায় জাতির জনকের নেতৃত্বে গনপরিষদ সদস্যদের দ্বারা গঠিত সরকার রাষ্ট্র পরিচালনার নীতি আদর্শ ভিত্তিক '৭২ এ এক লিখিত দলিল বা সংবিধান রচনা করেন। উক্ত সংবিধানে জাতির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বা অঙ্গিকারের প্রতি সর্বোচ্ছ সম্মান প্রদর্শন পুর্বক রাষ্ট্র পরিচালনায় উক্ত চার মূলনীতিকে রাষ্ট্র  পরিচালনার অলঙনীয় মূল স্তম্ভে পরিগনিত করা হয়।

  অতএব, ইহা সর্বতো ভাবে প্রতিষ্ঠিত ও স্বিকৃত যে, আওয়ামীলীগের দলীয় চার মূল নীতি পুর্ববাংলার জনগনের গৌরবের মহান মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গিকার। গনপরিষদ সদস্যদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে রচিত এবং বর্তমানে বাংলাদেশে প্রচলিত গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অলঙনীয় চার মূল ভিত্তিও প্রকারান্তরে আওয়ামীলীগ দলের চার মূলনীতির ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত।

পরবর্তী খবর পড়ুন : ভূমিদস্যু ও প্রতারক রমজান


আরও পড়ুন

তিতাস ঘোষের মৃত্যু,বিআইডব্লিউটিসির তদন্ত প্রতিবেদনঃ ভিআইপির তথ্যে ভুল সোয়া ঘণ্টা আটকে ছিল ফেরি

তিতাস ঘোষের মৃত্যু,বিআইডব্লিউটিসির তদন্ত প্রতিবেদনঃ ভিআইপির তথ্যে ভুল সোয়া ঘণ্টা আটকে ছিল ফেরি

ভিআইপির ভুল তথ্যে সোয়া ঘণ্টা আটকে ছিল ফেরি অ্যাম্বুলেন্সে রোগী ...

সাংসদ খোকার উদ্যোগে সৌদি আরবে নির্যাতিত নারী উদ্ধার, নির্যাতনকারী কফিল গ্রেপ্তার

সাংসদ খোকার উদ্যোগে সৌদি আরবে নির্যাতিত নারী উদ্ধার, নির্যাতনকারী কফিল গ্রেপ্তার

সৌদি আরবে গৃহকর্মীর শারীরিক ও যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন নারায়নগঞ্জের ...

ক্ষমা চাইলেন জাকির নায়েক

ক্ষমা চাইলেন জাকির নায়েক

ইসলামিক বক্তা ও ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েক নিজ বক্তব্যের জন্য ...

ভারতের চন্দ্র কক্ষপথে পৌঁছাল চন্দ্রায়ণ -২

ভারতের চন্দ্র কক্ষপথে পৌঁছাল চন্দ্রায়ণ -২

ভারতের ‘চন্দ্রযান-২’আজ(মঙ্গলবার) চাঁদের কক্ষপথে ঢুকেছে। ভারতীয় সময় সকাল ৯-২৮’এ এটি ...

হামজা ব্রিগেডের ৬১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

হামজা ব্রিগেডের ৬১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

চট্টগ্রামে হাটহাজারী ও বাঁশখালী থানার বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুই মামলায় ...

অপরাধীরা দ্রুত শাস্তি না পাওয়ায় ধর্ষণ বাড়ছে: হাইকোর্ট

অপরাধীরা দ্রুত শাস্তি না পাওয়ায় ধর্ষণ বাড়ছে: হাইকোর্ট

দ্রুততম সময়ে অপরাধীদের বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে না ...

মোদি-ইমরানের সঙ্গে ট্রাম্পের ফোনালাপ

মোদি-ইমরানের সঙ্গে ট্রাম্পের ফোনালাপ

আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় কাশ্মীর নিয়ে উত্তেজনা প্রশমনে ভারত ...

আজ পালিত হচ্ছে বিশ্ব মশা দিবস

আজ পালিত হচ্ছে বিশ্ব মশা দিবস

দেশে যখন ডেঙ্গু রোগ দুর্যোগে পরিণত, হাসপাতালে ভর্তি হাজার হাজার ...