সম্পাদকীয়

  • নিরাপত্তা প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনকালীন সফর সংখ্যা কমবে কেন?

    নিরাপত্তা প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনকালীন সফর সংখ্যা কমবে কেন?

  • আ স ম রবের ভাষণ যখন ‘পালাবার পথ পাবেন না’

    আ স ম রবের ভাষণ যখন ‘পালাবার পথ পাবেন না’

  • শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও প্রাসঙ্গিক কথা

    শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও প্রাসঙ্গিক কথা

  • প্রধানমন্ত্রীর এক নির্বাচনী সফরেই কুপকাত ড. কামাল

    প্রধানমন্ত্রীর এক নির্বাচনী সফরেই কুপকাত ড. কামাল

  • টাকা পাগল ড. কামালের বিরুদ্ধে মামলা!

    টাকা পাগল ড. কামালের বিরুদ্ধে মামলা!

বঙ্গবন্ধু কন্যাকে অভিনন্দন

প্রকাশ: ১২ এপ্রিল ২০১৮

সায়েদুল আরেফিন

একটা অবান্তর কথা বলতে ইচ্ছে করছে, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কোটা বাতিলের কথা শুনে। আমার এখন কেন জানি মনে হচ্ছে তিনি উচিৎ কাজটিই করেছেন। যাদের জন্য তিনি লড়াই করেন তারা থাকেন ঘুমিয়ে ,আর সব দায় একা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা কেন নেবেন?  কেন নেবেন?     

হাজার হাজার ছেলে মেয়ে জেনে না জেনে, কখনো বা ভুল বুঝে বা অপপ্রচারে রাস্তায় নেমেছে, তাদের দাবির কথা বলতে। তা তো তারা বলবেই। কিন্তু সুবিধভোগী মুক্তিযোদ্ধা আর তার পরিবারের মানুষেরা, সেই বিজ্ঞাপনের মত ‘নাকে তেল দিয়ে ঘুমাচ্ছেন’!  ভাবছেন তাদের জন্য আছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। বাহ কী চমৎকার চিন্তা! শাবাশ।      

পত্রিকার খবরে জানা যায় যে, লন্ডনে বসে মানুষ টাকা দিয়ে লোক ভাড়া করছে,আন্দলোনের জন্য। সে কথাও প্রকাশ্যে আব্দুল আওয়াল মিন্টু সাহেব বলে বেড়াছেন।  ছাত্র লীগ, যুব লীগ, আওয়ামীলীগসহ স্বাধীনতার পক্ষের দাবীদার সব শক্তি বসে তামাক খাচ্ছেন কী! নাকি অবৈধ পথে নীতি বিসর্জন দিয়ে টাকা আয় করছেন।  অন্য দিকে লন্ডনে বসে দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর ছেলে ফেসবুকে রাজাকারের ছেলেদের জন্য ১০ % কোটা আর মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডিতদের জন্য ইসলাম রক্ষার অবদান হিসেবে রাস্ট্রীয় সুবিধা চেয়ে স্ট্যাটাস দিচ্ছেন। কিন্তু দেশীয় আঁতেলরা নিরব। কি চমৎকার দৃশ্য!          

আমি মনে করি ১ জন মুক্তিযদ্ধার সন্তান ১০০ জন রাজাকারের সন্তানের চেয়ে বেশী ইমানী শক্তির অধীকারী। তারাও চুপ! বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা কার জন্য লড়বেন! নিজের দলের নেতারা টাকার বিনিময়ে কাউয়া লীগ বানিয়েছে। ছাত্রলীগ, যুব্ লীগ, শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, আওয়ামী লীগ সব লীগীই এখন কাওয়া লীগের দখলে। তারা টাকা দিয়ে নাকি পদ বিকিয়েছে বলে পত্রিকায় খবর হয়েছে। জাহাংগীর কবির নানক সাহেব এমন ইংগিত দিয়েছেন গত মঙ্গলবার। টাকায় পদ কেনারা তো আর আন্দোলনের জন্য নয়, টাকার পিছনে ঘোরে। এমন এমপি উপজেলা চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগে আছে যারা সারাজীবনে কখনো নৌকায় ভোট দেয় নি। কিন্তু তারা আওয়ামী লীগের এমপি বা নির্বাচিত চেয়ারম্যান, নৌকা ছাড়াই। আজব এই দেশ, আর এই দেশের দল। টাকা দিয়ে পদ কেনারা কি আন্দোলন করবে! কেন সরকারকে সাহায্য করবে! এরা তো সরকার আর সরকারী দলের কাজের পার্থক্যইবোঝে না।        

অভিযোগ করা হয় বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা যত না মানুষ তার চেয়ে বেশী মুসলমান। হ্যা, হতেই পারে। হবেন না কেন?  তিনি রাজনীতি করেন। রাজনীতির মূল কথা হল ক্ষমতায় গিয়ে নিজের বা দলের আদর্শ বস্তনায়ন করা। আর তার জন্য লাগে জনসমর্থন, মাঠে-ময়দানে; কাগজে কলমের চেয়ে বেশী। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের দাবীদার বামরা, পত্র পত্রিকায়, সোশ্যাল মিডিয়ায় বাঘ ভালুক মারেন, টক শোতে টেলিভিশনের পর্দা ফাটিয়ে ফেলেন, রাস্তায় নামেন না। তারা মুখে বলেন জনগন ক্ষমতার উৎস। কিন্তু নিজেরা তা কখনো বিশ্বাস করেন না। অনেক প্রমান আছে। একটা বলি।       

  

হেফাজত যখন মতিঝিল দখল করলো, তখন তারা কী ১ লাখ না হউক ৫০ হাজার লোকের একটা সমাবেশ করতে পারতো না? কি এমন বাম তারা? কতজন মানুষ তাদের সাথে থাকে? পাঠ্যপুস্তকের  বিষয় নির্বাচন নিয়ে হুযুররা আন্দোলন করলেন, তাদের কথা বললেন। হাই কোর্টের মূর্তি সরানোর কথা বললেন, লাখ লাখ লোক। তার বিপরীতে হলো শুধু কলম যুদ্ধ আর টেলভিশনে নানা ধরণের এনালাইসিস, সাথে জনগন নেই। সরকার কার কথা শুনবেন? টক শো বিশেষজ্ঞ আর একটা রিক্সাওয়ালার ভোটের মধ্যে কি কোন  তফাত আছে? নাই। সরকারকে নিজের মতে আনার ক্ষেত্র কি বামরা, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষেরা  তৈরী করতে পেরেছেন?          

   

রাজনৈতিক দল রাজনীতি করে ভোটের জন্য, ক্ষমতায় যাবার জন্য। যার দল যত ভারী দল বা সরকার তার দিকে যাবে। দরকার হলে কৌশলগত কারণে আপোষ করে নেবে, সবাই তাই করে। বামরা আপোষ করে ডান হয়। ইসলামী দলেরা ক্ষমতা দখল করতে খুন খারাবীও করে দুনিয়া জুড়ে আইএস, লাদেন তার প্রমাণ। আর আমাদের দেশের বামরা, মুক্তিযোদ্ধারা তাদের প্রাণের দাবী আদায়ে সরকারকে সুযোগ করে দিতে একটা ছোট বা মাঝারী সমাবেশ করতেও পারে না। বিএনপি টাকা খরচ করে নাকি আন্দলন করছে। ভাল কথা, তারা তা করবেই তো। ক্ষমতায় যেতে হবে না!  

    

যে দেশের বুদ্ধিজীবীরা এনজিও খুলে তার নামে টাকার বিনিময়ে ন্যয্য কথা বলতে চুপ থেকে অন্যায্য কথা বলে, সেক্যুলার দাবিদাররা ঝড়ে পড়া আম কুড়িয়ে খাবার আশায় থাকে। যারা সরকারের বিরোধীতা আর রাষ্ট্রের বিরধীতার পার্থক্য বোঝে না, তারাও বড় বড় নেতা।  পাশের ভারতের জ্যোতি বসুকে সবাই চেনেন। তিনি বহুবার বাংলাদেশে এসেছে। তার মুখ থেকে কেউ কি কোন দিন ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলতে শুনেছেন? যে দেশের রাজনীতিকদের এই বোধ নেই সেই দেশের প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের সুবিধা তথা কোটা বাতিলের ঘোষনা খুউউব যুক্তিযুক্ত।  মুক্তিযোদ্ধা, বুদ্ধিজীবী, শুশীল সমাজের মানুষদের জন্য রইল ধিক্কার। কারণ এরাই একদিন বলবে, আন প্রডাক্টিভ বুড়ো বাবা মা কে পয়জন ইঞ্জেকশন দিয়ে মেরে ফেলা দরকার, না হয় ওল্ড হোমে ফেলে আসো। এরা খালি টাকা চেনে, আবেগ, ভালবাসা বলে কিছু নেই এদের মধ্যে। দেশ প্রেম, মানব প্রেম, পরিবার প্রেমের আরেক নাম আবেগ, চেতনা।     

    

আমি তারেক জিয়া, আব্দুল আওয়াল মিন্টুদের অভিনন্দন জানায় তাদের এই সাময়িক সফলতার জন্য। চূড়ান্ত সফলতা পাক আর না পাক। কিছু একটা করে তারা দেখিয়ে দিয়েছে যে তারা কিছু হলেও পারে।  


অভিনন্দন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে তার সাহসী সিদ্ধান্তের জন্য। কত কস্টে তিনি এই উচ্চারণ করেছে তা অনেকেই অনুমান করতে পারেন তার কথার টোণ শুনে। তিনি কার জন্য কাজ করবেন! যারা তার সাহায্য চায় না, তাদের জন্য! কোন দরকার আছে কি? দেশে এগুচ্ছে, এগুবে। তিনি জানেন কীভাবে মানুষের মন জয় করতে হয়। কীভাবে ভোটের রাজনীতি করতে হয়।    

আসুন রাজাকারের সন্তানদের জন্য কোটার আন্দোলন দেখার জন্য প্রস্তুত হই। 




© সায়েদুল আরেফিন 

উন্নয়ন কর্মী ও কলামিস্ট 

E-mail: arefinbhai59@gmail.com

আরও পড়ুন

নির্বাচনের সময় চারদিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক

নির্বাচনের সময় চারদিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে টানা চার দিনের ছুটির ...

সাংবাদিকদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বছর ২০১৮

সাংবাদিকদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বছর ২০১৮

২০১৮ সালকে সাংবাদিকতার সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বছর হিসেবে আখ্যা দিয়েছে সাংবাদিকদের ...

ভোটের দিন ইন্টারনেটের গতি কমতে পারে

ভোটের দিন ইন্টারনেটের গতি কমতে পারে

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন বিকাল ৫টা নির্বাচন কমিশন পর্যন্ত ...

১৫ দফা নিয়ে জাসদের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা

১৫ দফা নিয়ে জাসদের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা

‘পরিবর্তনের ধারা সংহত করা ও এগিয়ে নেয়া’ শিরোনামে ১৫ দফা ...

নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর জন্য প্রাথমিক বরাদ্দ ৪০০ কোটি টাকা

নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর জন্য প্রাথমিক বরাদ্দ ৪০০ কোটি টাকা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের ...

৪০ হাজার শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

৪০ হাজার শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

দেশের বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৪০ হাজার ...

সৌদির ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বাজেট ঘোষণা

সৌদির ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বাজেট ঘোষণা

সৌদি আরবের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বাজেট ঘোষণা করেছেন দেশটির বাদশাহ ...

শেখ হাসিনা বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী: দ্য স্ট্যটিসটিক্স

শেখ হাসিনা বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী: দ্য স্ট্যটিসটিক্স

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করেছে ...