গ্যাসের মজুত শেষ হচ্ছে ২০৩১ সালে

প্রকাশ: ২০ জানুয়ারী ২০২০ |

নিজস্ব প্রতিনিধি ■ বাংলাদেশ প্রেস

দেশে উত্তোলনযোগ্য প্রাকৃতিক গ্যাস যেটুকু রয়েছে তা আর মাত্র ১১ বছর ব্যবহার করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। সে অনুযায়ী ২০৩১ সালে শেষ হচ্ছে গ্যাসের মজুত।

সোমবার সংসদে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী। সরকারি দলের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ এবাদুল করিমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশে বর্তমানে ১০ দশমিক ৬৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট উত্তোলনযোগ্য গ্যাসের মজুত রয়েছে। যা ১১ বছর ব্যবহার করা যাবে। গ্যাসের ক্রমবর্ধমান চাহিদার কারণে সম্ভাব্য স্থানে গ্যাসের কূপ খননের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

দেশে বিদ্যমান গ্যাস ক্ষেত্রসমূহ থেকে বর্তমানে দৈনিক দুই হাজার ৫৭০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উৎপাদন করা হচ্ছে বলে জানান নসরুল হামিদ। তিনি বলেন, নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০১৯-২১ সাল নাগাদ দুটি অনুসন্ধান কূপ, ২০২২-৩০ সাল নাগাদ ১৩টি অনুসন্ধান কূপ এবং ২০৩১-৪১ সাল নাগাদ ২০টি অনুসন্ধান কূপ খননের উদ্যোগ নিয়েছে বাপেক্স।

অপর প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারি পর্যায়ে ১২ দশমিক পাঁচ কেজি এলপিজির দাম ৭০০ টাকা। আর বেসরকারি খাতে বটলিংকৃত প্রতিটি ১২ কেজির সিলিন্ডার খুচরা পর্যায়ে ৯৫০ থেকে ১০০০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।