শরিয়ত বয়াতির মুক্তির দাবিতে জাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশ: ১৯ জানুয়ারী ২০২০ |

নিজস্ব প্রতিবেদক ■ বাংলাদেশ প্রেস

বাউলশিল্পী শরিয়ত সরকারের মুক্তি ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষক নাট্যব্যক্তিত্ব আনন জামান সহ থিয়েটার কর্মীদর ওপর হামলার বিচারের দাবিতে ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ।

রোববার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনার সংলগ্ন সড়কে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রট জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা, সামাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রট (মার্ক্সবাদী) ও সাংস্কৃতিক জোটের নেতারা সংহতি প্রকাশ করেন।

মানবন্ধনে তারা বাউলশিল্পী শরিয়ত সরকারের অবিলম্বে মুক্তি ও থিয়েটার কর্মীদর উপর হামলার দ্রুত বিচারের দাবি জানান।

এসময় ছাত্র ইউনিয়ন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি মিখা পিরেগু বলেন, বাংলাদেশ ধর্মনিরপেক্ষতার নিরিখে সৃষ্টি হয়েছে। সাম্প্রদায়িক শক্তিকে পরাজিত করে রক্তের বিনিময়ে আমরা এ স্বাধীনতা পেয়েছি। সাম্প্রদায়িক শক্তির সাথে আপোষ করেছে এ সরকার। বর্তমানে দেশে সাংস্কৃতিক কর্মী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষরাও অনিরাপদ অবস্থায় রয়েছে।

তিনি বলেন, মুক্তবুদ্ধির চর্চা ও বাকস্বাধীনতায় আঘাত আনতে পারে এমন সমাজ ব্যবস্থা আমাদের কখনোই কাম্য ছিল লা। এদেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানানোর যা চক্রান্ত করা হচ্ছে তা রুখে দিতে আমরা বদ্ধপরিকর।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রট (মার্ক্সবাদী) বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, এ সমস্ত কর্মকান্ডের মাধ্যম এ সরকার নিজেদের মৌলবাদী সরকারে রুপান্তরিত করছে। সাম্প্রদায়িক শক্তির উপর ভর করে অসাম্প্রদায়িকতার মুখোশ পড়ে এ সরকার শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতিকে নষ্ট করতে চাচ্ছে।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়র নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মাহমুদুল হাসান বলেন, যেকোনো ধরনের ভিন্নমত থাকলেই সে ব্যক্তিকে রাষ্ট্র তার আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দিয়ে হয়রানি করছে। বর্তমানে যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করা হয়েছে তা আমাদর বাকস্বাধীনতাকে রুদ্ধ করছে।

তিনি বলেন, এ আইন নিরাপত্তার নাম আমাদের কথা বলার অধিকারকে হরন করা হয়েছে। এ আইন আমাদের সংবিধানের পরিপন্থী আমরা এ আইন বাতিল করার দাবি জানাছি।

ছাত্র ইউনিয়ন বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের দপ্তর সম্পাদক আতাউল হক চৌধুরীর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রকিবুল হক রনি, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের আহবায়ক শোভন রহমান প্রমুখ।