সোনারগাঁয়ের মোগড়াপাড়া চৌরাস্তা বাসষ্ট্যান্ড হকারদের দখলে

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০১৯

আলমগীর হোসেন প্লাবন (সোনারগাঁ)নাঃগঞ্জ প্রতিনিধি ■ বাংলাদেশ প্রেস

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ ঢাকা-চট্টগ্রাম হাইওয়ে সড়ক এর ৪০ ফুট হাইওয়ে সড়ক দখল করে চলছে ফল সামগ্রী সহ বিভিন্ন দোকান। বস্তুুত পক্ষে দেখে বোঝার উপায় নেই, এটি হাইওয়ে সড়ক না-কি ফুটপাত নাকি ব্যবসাকেন্দ্র। গাড়ি চলাচলের সড়ক ও হাঁটার জায়গা জুড়ে পণ্যসামগ্রীর পসরা আর বিক্রেতাদের ব্যস্ততা। পথচারীরা ফুটপাতে জায়গা না পেয়ে রাস্তায় হাঁটবেন, সেখানেও একই অবস্থা। সড়ক দখল করে রাখা হয়েছে দোকান।

সোমবার  বিকেলে সরেজমিনে দেখা গেছে, সোনারগাঁয়ের প্রাণ কেন্দ্র মোগরাপাড়া চৌরাস্তা মহা সড়ক এর পাশেই চৌরাস্তা জামে মসজিদ।নামাজের সময় নামাজরত মুসুল্লিদের পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি। সড়ক ঘিরে বাঁশ দিয়ে টাঙিয়ে রাখা হয়েছে বিশাল সামিয়ানা ও প্যান্ডেল। বিশেষ কায়দায় দখল করা হয়েছে গাড়ি চলাচলের সড়ক ও পথচারীদের ব্যবহারের এই ফুটপাত। এতে পথচারীদের পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি।

পথচারীরা অভিযোগ করে বলেন, প্রকাশ্যেই ফুটপাত দখল করে ফল ব্যবসায়ীরা। তারা ব্যবসা করুক এতে তো আমাদের আপত্তি নেই। কিন্তু আমাদের যাওয়া আসার হাঁটার জায়গাটাও তারা দখলে নিয়ে রেখেছে। বিশষ করে ক্রেতা বিক্রেতাদের ভিড়ে এখান দিয়ে চলাচলই করা যায়না। সড়ক এর পাশে জায়গা না থাকায়। ঢাকা থেকে সোনারগাঁ গামী যাত্রী নামতে হয় সড়ক এর মাঝেই। এতে করে মহিলা যাত্রীরা নানারকম সমস্যায় পড়ে। তাছাড়াও যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা।

শাহীন  নামে এক যাত্রী বলেন স্থানীয় প্রশাসন ও ভ্রাম্যমান আদালত সংশ্লিষ্ট কেউ যদি পদক্ষেপ নিতো তবে আমরা সোনারগাঁ বাসি সাধারণ জনগন ভোগান্তি থেকে রক্ষা পেতাম। বাস চালক এর সাথে কথা বলে জানা যায়,  সড়ক এর পাশে জায়গা না থাকায় যাত্রীদের সড়ক এর মাঝে নামিয়ে দিতে হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একজন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এটা আর নতুন কি। প্রশাসন নজরদারীতে কিছুদিন এই ফুটপাত দখল মুক্ত হলেও, কিছুদিন পর মধ্যে শুরু হয় ফুটপাত দখলের প্রতিযোগীতা।রাস্তায় চলা যায় না যানবাহনের কারণে, আর ফুটপাতে চলা যায়না অসাধু দখলকারী ব্যবসায়ীদের কারণে।তাছাড়া বিষাক্ত ময়লা আবর্জনার স্তুপের ফলে দূরগন্দ্বে বাতাসে মিশে গিয়ে একাকার।