• কল্যানপুরে পেট্রল পাম্পে অগ্নিকাণ্ড

    কল্যানপুরে পেট্রল পাম্পে অগ্নিকাণ্ড

  • লোহার খনি আবিষ্কারঃ আজ মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন জিএসবি

    লোহার খনি আবিষ্কারঃ আজ মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন জিএসবি

  • খালেদা জিয়ার জামিন প্রমাণ করে বিচারবিভাগ স্বাধীন: কাদের

    খালেদা জিয়ার জামিন প্রমাণ করে বিচারবিভাগ স্বাধীন: কাদের

  • দুই মামলায় খালেদা জিয়ার ৬ মাসের জামিন

    দুই মামলায় খালেদা জিয়ার ৬ মাসের জামিন

  • অন্যায় অনুযায়ী ওসি মোয়াজ্জেমের যা ব্যবস্থা নেওয়ার নেওয়া হয়েছে

    অন্যায় অনুযায়ী ওসি মোয়াজ্জেমের যা ব্যবস্থা নেওয়ার নেওয়া হয়েছে

ট্রাফিক পুলিশদের অবৈধ সম্পদের খোঁজে দুদক

স্লিপ বিক্রি করে প্রতিমাসে একটি সিন্ডিকেটর আয় হতো কোটি কোটি টাকা!

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯     আপডেট: ১২ জুন ২০১৯

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি ■ বাংলাদেশ প্রেস

চট্টগ্রামে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে জেলা ট্রাফিক পুলিশের টিআই মীর নজরুল ইসলাম ও তার স্ত্রীসহ বেশ কয়েকজন সদস্যের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন- দুদক।

এসব কর্মকর্তা ও তাদের স্ত্রীদের অবৈধ সম্পদের তথ্য প্রমাণ এসেছে দুদকের হাতে। নজরদারিতেও রয়েছে আরো কয়েকজন ট্রাফিক পুলিশ সদস্য।

চট্টগ্রামে ট্রাফিক পুলিশের দূর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ও তাদের স্ত্রীদের অবৈধ সম্পদের খোঁজে তালিক করে মাঠে নেমেছে দুদক। এ তালিকায় নাম রয়েছেন জেলা ট্রাফিক পুলিশের টিআই মীর নজরুল ইসলাম, নগর পুলিশের ট্রাফিক শাখার পরিদর্শক আবুল কাশেম। বিভিন্ন অভিযোগে গত ৫ই নভেম্বর তাকে স্ট্যান্ড রিলিজ করে রংপুর রেঞ্জে বদলি করা করা হয় কাশেমকে।

এছাড়া টিআই শাহাদত, সদ্য প্রত্যাহার হওয়া টিআই লোবেল, আকবরশাহ’র টিআই জসিমউদ্দিন সহ বেশ কয়েকজনের নাম রয়েছে। এসব কর্মকর্তা ও তাদের স্ত্রীদের সম্পদের বৈধ উৎস জানতে সম্পদ বিবরণী সাত কর্মদিবসের মধ্যে জমা দিতে নোটিশ পাঠিয়েছে দুদক।

চট্টগ্রাম দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় উপ পরিচালক মোহাম্মদ লুৎফুল কবির চন্দন জানান, ‘বেশ কয়েকজনের বিষয়ে আমাদের কাছে তথ্য এসেছে, সেগুলো আমরা যাচাই বাছাই করছি। সেই সঙ্গে আরও যারা জড়িত আছে সেগুলোও আমরা দেখছি। আরও যারা জড়িত আছে তাদেরকেও যখন আমরা বের করতে পারবো, তখন পূর্ণাঙ্গভাবে আমরা জানাবো।’

চট্টগ্রাম নগরী ও জেলায় ৬ থেকে ৭ বছর ধরে চলছে ট্রাফিক পুলিশের মাসিক স্লিপ বাণিজ্য। ফিটনেস ও লাইসেন্সবিহীন গাড়ি মালিকদের কাছে বিশেষ এই স্লিপ বিক্রি করে প্রতিমাসে একটি সিন্ডিকেটর আয় হতো প্রায় ৫ কোটি টাকা।

এসব অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকে বদলি করা হলেও আকবরশাহ’র টিআই জসিমউদ্দিন, বন্দরের সার্জেন্ট আশিকুজ্জামান আছেন বহাল তবিয়তে।

সিএমপি অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম জানান, ‘বিষয়টি চেক অ্যান্ড ভেরিফাই করা হচ্ছে। যদি এ ধরনের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়, কোনও অফিসারের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

দীর্ঘদিন ধরে ট্রাফিক বিভাগের সিন্ডিকেটটি অবৈধভাবে মাসিক স্লিপ ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ ও নানা অনিয়ম করে আসলেও নেয়া হয়নি ব্যবস্থা।

পরবর্তী খবর পড়ুন : বিয়ের আগেই সম্পর্ক শেষ পরীমনির


আরও পড়ুন

বিকাশ–রকেটে ব্যালেন্স দেখলে গ্রাহকের টাকা যাবে না

বিকাশ–রকেটে ব্যালেন্স দেখলে গ্রাহকের টাকা যাবে না

মুঠোফোনভিত্তিক আর্থিক সেবার (এমএফএস) ক্ষেত্রে হিসাবের ব্যালান্স দেখতে গ্রাহককে কোনো ...

কল্যানপুরে পেট্রল পাম্পে অগ্নিকাণ্ড

কল্যানপুরে পেট্রল পাম্পে অগ্নিকাণ্ড

রাজধানীর কল‌্যানপুর বাসস্ট্যান্ডের কাছে একটি পেট্রল পাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ...

টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলো ইংল্যান্ড

টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলো ইংল্যান্ড

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ইংল্যান্ড-আফগানিস্তানের দেখা হয় না বললেই চলে। এখন পর্যন্ত ...

বিশ্বকাপ খেলায় মাশরাফিকে গালাগালি

বিশ্বকাপ খেলায় মাশরাফিকে গালাগালি

বাংলাদেশ ক্রিকেট টীমকে গালাগালি করা এক শ্রেণীর তথাকথিত বাংলাদেশী মানুষের ...

লোহার খনি আবিষ্কারঃ আজ মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন জিএসবি

লোহার খনি আবিষ্কারঃ আজ মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন জিএসবি

দেশে এই প্রথমবারের মতো উন্নত মানের লোহার আকরিকের (ম্যাগনেটাইট) খনি ...

খালেদা জিয়ার জামিন প্রমাণ করে বিচারবিভাগ স্বাধীন: কাদের

খালেদা জিয়ার জামিন প্রমাণ করে বিচারবিভাগ স্বাধীন: কাদের

বিচারবিভাগ যে স্বাধীন তা মানহানির দুই মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা ...

দুই মামলায় খালেদা জিয়ার ৬ মাসের জামিন

দুই মামলায় খালেদা জিয়ার ৬ মাসের জামিন

মানহানি ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের দুই মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা ...

নড়াইলে বিকাশ এজেন্ট চন্ডি ঘোষকে কুপিয়ে লাখ টাকা ছিনতাই!

নড়াইলে বিকাশ এজেন্ট চন্ডি ঘোষকে কুপিয়ে লাখ টাকা ছিনতাই!

নড়াইলের মহাজন সোনালী ব্যাংক বাজার শাখা থেকে টাকা উত্তোলন করে ...