• ‘মাত্র ৫ ঘণ্টা ঘুমাই, জীবনটাকে দেশের জন্য উৎসর্গ করেছি’

    ‘মাত্র ৫ ঘণ্টা ঘুমাই, জীবনটাকে দেশের জন্য উৎসর্গ করেছি’

  • প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক হতে চেয়েছিলাম : প্রধানমন্ত্রী

    প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক হতে চেয়েছিলাম : প্রধানমন্ত্রী

  • গাজীপুরে বিএনপি প্রার্থী গ্রেপ্তার

    গাজীপুরে বিএনপি প্রার্থী গ্রেপ্তার

  • মোবাইল গ্রাহকদের অধিকার রক্ষায় হাইকোর্টে রিট

    মোবাইল গ্রাহকদের অধিকার রক্ষায় হাইকোর্টে রিট

  • খালেদার প্রার্থিতা নিয়ে দুপুরে একক বেঞ্চে শুনানি

    খালেদার প্রার্থিতা নিয়ে দুপুরে একক বেঞ্চে শুনানি

ইতিহাস কখনও মুছে ফেলা যায় না

প্রকাশ: ০৮ মার্চ ২০১৮     আপডেট: ০৮ মার্চ ২০১৮

বাংলাদেশ প্রেস ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, স্বাধীনতার পর বিভিন্ন সময় ৭ মার্চের ভাষণ বাজাতে গিয়ে অনেকে গ্রেপ্তার নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। কিন্তু আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সব বাধা পেরিয়ে ৭ মার্চ, ২৬ মার্চ বা ১৫ আগস্টের মতো দিনে এই ভাষণ বাজিয়েছেন। বিকৃতির মাধ্যমে বার বার বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু, ইতিহাস কখনও মুছে ফেলা যায় না। শত চেষ্টার পরেও তারা এই ভাষণ মুছে ফেলতে পারেনি।


বুধবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজ যেখানে শিশুপার্ক ঠিক সেখানে সেদিনের মঞ্চ ছিল। আমার সৌভাগ্য হয়েছিল সেখানে উপস্থিত থাকার। জাতির পিতা সেখানে দাঁড়িয়েই ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’ সেই ঐতিহাসিক ঘোষণা দিয়েছিলেন। 


শেখ হাসিনা হলেন, তার সেই ঘোষণা সমগ্র বাংলাদেশে ছড়িয়ে যায়। সত্যই প্রতিটি ঘরে দুর্গ গড়ে উঠে। পাকিস্তানিরা যখন গণহত্যা শুরু করলো তখন বঙ্গবন্ধু ইপিআরের ওয়ারলেস ব্যবহার করে স্বাধীনতা না পাওয়া পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যেতে বলছিলেন। বাংলার মানুষ সেই নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছে।


তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের মানুষের অর্থনৈতিক, সামাজিক, রাজনৈতিক মুক্তির জন্য বঙ্গবন্ধু আজীবন আন্দোলন করেছেন। যেখানেই বঙ্গবন্ধু অন্যায় দেখেছেন সেখানেই তিনি প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন। স্বাধীনতার পর মাত্র সাড়ে ৩ বছর সময় পেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। এই সামান্য সময়েই তিনি সারাবিশ্বে বাংলাদেশের স্বীকৃতি আদায়, মানুষের অভাব দূর, রাস্তাঘাট সংস্কার, এককোটি শরনার্থীর পুনর্বাসনসহ অনেক উন্নয়ন করেছেন। কিন্তু যখনই দেশ ভালোভাবে চলতে শুরু করে, তখনই বঙ্ঘবন্ধুকে হত্যা করা হয়। তিনি দেশ স্বাদীন করেছিলেন এটাই কি তার অপরাধ ছিল?

আরও পড়ুন

ঐক্যফ্রন্টের তিনদিনের কর্মসূচি ঘোষণা

ঐক্যফ্রন্টের তিনদিনের কর্মসূচি ঘোষণা

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে তিন দিনের ...

বিবিসিকে 'নির্বাচনী ইশতেহার' নিয়ে যা বললেন রিজভী

বিবিসিকে 'নির্বাচনী ইশতেহার' নিয়ে যা বললেন রিজভী

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে বিএনপি নির্বাচনী ইশতেহারে তরুণদের ...

২৪ ঘন্টার মধ্যে সেনা মোতায়েন চেয়ে ইসিকে নোটিশ

২৪ ঘন্টার মধ্যে সেনা মোতায়েন চেয়ে ইসিকে নোটিশ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিচারিক ক্ষমতাসহ আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে ...

রব ও মান্নাকে ছাত্রলীগ-যুবলীগের ধাওয়া

রব ও মান্নাকে ছাত্রলীগ-যুবলীগের ধাওয়া

ঢাকা-১৮ আসনের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল ...

ক্ষমতায় গেলে বেকার যুবকদের ভাতা দেয়া হবে: ফখরুল

ক্ষমতায় গেলে বেকার যুবকদের ভাতা দেয়া হবে: ফখরুল

ঠাকুরগাঁও-১ আসনের বিএনপির প্রার্থী ও দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম ...

১০ বছরে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন

১০ বছরে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন

একাদশ সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) থেকে গণপ্রচারণায় ...

ডঃ কামাল হোসেন সাহেব নিজের বিবেক কে কত টাকায় বিক্রি করে দিলেন?

ডঃ কামাল হোসেন সাহেব নিজের বিবেক কে কত টাকায় বিক্রি করে দিলেন?

স্যার আপনি সিলেটে গিয়ে আহ্বান জানিয়েছেন আপনার নিজের হাতে তৈরি ...

জঙ্গলে ধ্যানরত বৌদ্ধ ভিক্ষুকে খেয়ে ফেললো বাঘ!

জঙ্গলে ধ্যানরত বৌদ্ধ ভিক্ষুকে খেয়ে ফেললো বাঘ!

জঙ্গলে ধ্যান করতে গিয়ে চিতাবাঘের কবলে পড়ে প্রাণ হারালেন এক ...