• ৫৮ অনলাইন পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

    ৫৮ অনলাইন পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

  • বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ৪৮তম শাহাদৎ বার্ষিকী আজ

    বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ৪৮তম শাহাদৎ বার্ষিকী আজ

  • চার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীকে অব্যাহতি দিয়ে প্রজ্ঞাপন

    চার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীকে অব্যাহতি দিয়ে প্রজ্ঞাপন

  • 'অরেঞ্জ দ্যা ওয়ার্ল্ড, হেয়ার #মিটু'

    'অরেঞ্জ দ্যা ওয়ার্ল্ড, হেয়ার #মিটু'

  • ভিকারুননিসার শিক্ষক হাসনা হেনার জামিন মঞ্জুর

    ভিকারুননিসার শিক্ষক হাসনা হেনার জামিন মঞ্জুর

চাকরিতে কোটা পদ্ধতি পুনর্মূল্যায়ন চেয়ে রিট খারিজ

প্রকাশ: ০৬ মার্চ ২০১৮

বাংলাদেশ প্রেস ডেস্ক

সরকারি চাকরিতে নিয়োগে কোটাকে সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক দাবি করে উচ্চ আদালতে করা আবেদন খারিজ হয়ে গেছে। কোটা সংস্কারের দাবিতে ছাত্রদের একাংশের আন্দোলন চলার সময় এই রিট আবেদন করা হয়েছিল হাইকোর্টে।


সোমবার বিচারাপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো.আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আবেদনটি খারিজ করে দেন।


গত ৩১ জানুয়ারি রিট আবেদনটি করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আনিসুর রহমান মির, ঢাকাস্থ কুমিল্লা সাংবাদিক সমিতির সদস্য সচিব দিদারুল আলম ও দৈনিক আমাদের অর্থনীতির সিনিয়র সাব এডিটর আব্দুল ওদুদ।


সরকারি চাকরিতে নিয়োগে পশ্চাদপদ বিভিন্ন গোষ্ঠী এবং মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য কোটার পাশাপাশি নারী ও জেলা কোটা রয়েছে। সব মিলিয়ে কোটার সংখ্যা ৫৬ শতাংশ। নানা সময় দেখা গেছে সরকারের শেষ বছরে কোটা পদ্ধতি বাতিল বা সংস্কার চেয়ে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীদের একাংশ। গত ফেব্রুয়ারিতেও এই আন্দোলন শুরু হয়েছে।


সবশেষ ৪ মার্চ রাজধানীর শাহবাগে কর্মসূচি পালন করা হয়েছে ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদ’এর ব্যানারে। তারা সরকারি চাকরিতে কোটা ৫৬ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনা, কোটায় যোগ্য প্রার্থী না পেলে সাধারণ প্রার্থীদের থেকে নিয়োগ দেয়া, কোটায় কোনো বিশেষ নিয়োগ পরীক্ষা না নেয়া, নিয়োগ পরীক্ষায় কোনো একাধিক কোটার ব্যবহার না করা এবং সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে অভিন্ন বয়সসীমা নির্ধারণের দাবি জানাচ্ছে।


নানা সময় দেখা গেছে আন্দোলনকারীরা মূলত মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কোটার বিষয়টি মানতে চাইছে না। তাদের দাবি, এই ৩০ শতাংশ কোটার জন্য তারা বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন। আবার মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে আপত্তি উঠায় এরও বিরূপ প্রতিক্রিয়া আছে দেশে।


১৯৭২ সালে এক নির্বাহী আদেশে সরকারি, বেসরকারি, প্রতিরক্ষা, আধা সরকারি এবং জাতীয়করণ করা প্রতিষ্ঠানে ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা ও ১০ শতাংশ ক্ষতিগ্রস্ত নারীদের জন্য কোটা প্রবর্তন করা হয়।


পরে বিভিন্ন সময়ে কোটায় সংস্কার ও পরিবর্তন করা হয়। বর্তমানে সরকারি চাকরিতে প্রতিবন্ধীদের জন্য এক শতাংশ, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও নাতি-নাতনিদের জন্য ৩০ শতাংশ, নারীদের জন্য ১০ শতাংশ, পশ্চাদপদ জেলাগুলোর জন্য ১০ শতাংশ এবং ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য পাঁচ শতাংশ চাকরি সংরক্ষিত রয়েছে।


রিট আবেদনে এই কোটাকে প্রথা সংবিধানের ১৯,২৮ ও ২৯ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক দাবি করা হয়েছিল বলে দাবি করা হয়েছিল বলে রিটকারীদের আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূইয়া সাংবাদিকদেরকে জানান।

আরও পড়ুন

হাইকোর্ট থেকে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন ইমরানসহ ১১ প্রার্থী

হাইকোর্ট থেকে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন ইমরানসহ ১১ প্রার্থী

নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট করে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন ...

৫৮ অনলাইন পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

৫৮ অনলাইন পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

দেশের ৫৮টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ ...

সিরাজগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জনের প্রাণহানি

সিরাজগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জনের প্রাণহানি

সিরাজগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত হয়েছে। রোববার দুপুরে সিরাজগঞ্জ-বগুড়া ...

দুই আসনেই নির্বাচন করছেন এরশাদ

দুই আসনেই নির্বাচন করছেন এরশাদ

দুটি আসনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি ...

১৩ ডিসেম্বর শুরু হচ্ছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের বিজয় উৎসব

১৩ ডিসেম্বর শুরু হচ্ছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের বিজয় উৎসব

চলছে বিজয়ের মাস ডিসেম্বর। বরাবরের মতো এবারও বিজয় উৎসবের আয়োজন ...

নির্বাচনী এলাকায় যাচ্ছে স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স

নির্বাচনী এলাকায় যাচ্ছে স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স

তিনশ নির্বাচনী এলাকায় স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স পাঠানো শুরু করেছে নির্বাচন ...

প্রথম আলো সম্পাদকের বদলে যাওয়ার কাহিনী

প্রথম আলো সম্পাদকের বদলে যাওয়ার কাহিনী

বাঁচার জন্য নয়, শুধু টাকার জন্য নীতি নৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে ...

বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ৪৮তম শাহাদৎ বার্ষিকী আজ

বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ৪৮তম শাহাদৎ বার্ষিকী আজ

আজ ১০ ডিসেম্বর বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ৪৮তম শাহাদৎ বার্ষিকী। ১৯৭১ ...