• আখেরি মোনাজাত রোববার সাড়ে ১০টা থেকে ১১টায়

    আখেরি মোনাজাত রোববার সাড়ে ১০টা থেকে ১১টায়

  • জাতীয়করণের দাবিতে আমরণ অনশন চলছে

    জাতীয়করণের দাবিতে আমরণ অনশন চলছে

  • আরো এক মুসল্লির মৃত্যু

    আরো এক মুসল্লির মৃত্যু

  • ঢাবির রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট নির্বাচন চলছে

    ঢাবির রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট নির্বাচন চলছে

  • ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে চলছে বয়ান

    ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে চলছে বয়ান

সিপিডি বাংলাদেশকে নিচে নামাতে ব্যস্ত : অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ: ১৪ জানুয়ারী ২০১৮

বাংলাদেশ প্রেস ডেস্ক

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, সিপিডি বাংলাদেশকে টেনে নামানোর চেষ্টা করছে। তারা কখনো বাংলাদেশের উন্নয়ন চোখে দেখে না। শুধু নেতিবাচক দিকগুলো তুলে ধরে।


আজ রবিবার সচিবালয়ে মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এমসিসিআই) সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী।


গতকাল শনিবার ‘বাংলাদেশ অর্থনীতি ২০১৭-২০১৮: প্রথম অন্তর্বর্তীকালীন পর্যালোচনা’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে সিপিডি। সেখানে সিপিডি জানায়, ২০১৭ সাল ছিল ব্যাংক খাতের কেলেঙ্কারির বছর।


আরো পড়ুন: কম বয়সীরা নিজ উদ্যোগেই কর দিচ্ছে : অর্থমন্ত্রী


সিপিডির এই মন্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, কই, অত বড় কেলেঙ্কারি (হলমার্ক) হয়ে গেল, তখন তো তারা কিছু বলেনি।


ওই সংবাদ সম্মেলনে ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য  বলেন, সার্বিকভাবে ২০১৭ সালে অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা চাপের মধ্যে ছিল। ব্যাংক অস্থিতিশীলতা নিরসনে কোনো পদক্ষেপ ২০১৮ তে হবে সেটার কোনো লক্ষণ আমরা দেখছি না। আমরা দেখছি অপরিশোধিত ঋণ বেড়ে গেছে। করের টাকা দিয়ে পুনরায় তফসিলি করা হয়েছে।


আরো পড়ুন: শিগগিরই গ্রামীণ ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন হবে : অর্থমন্ত্রী


সিপিডি আরো জানায়, ঋণ লোপাট, ২০১৮ সালেও নাজুক পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণের সুযোগ নেই। কারণ ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধন করে মালিকদের পারিবারিক নিয়ন্ত্রণ আরো বাড়ানোর সুযোগ করে দিয়েছে সরকার।


ওই পর্যালোচনায় কোন বিষয়টি আপত্তিকর সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘দ্যাটস অল রাবিশ.. রাবিশ..রাবিশ’।


পরে তিনি বলেন, আগামী অর্থবছরে ভ্যাটের হার আলাদা হবে বলে। হয়তো আগামী বাজেটই আমার শেষ বাজেট। দারিদ্র্য বিমোচনে সরকার যেসব পদক্ষেপ নিয়েছে তাতে ২০২০ সালেই এ লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছানো যাবে। তবে কিছু ফাঁক-ফোকর দিয়ে কিছু দারিদ্র্য থেকে থাকবে, তাই ২০২৪ সাল ধরেছি।

আগামী নির্বাচনে জনগণ আওয়ামী লীগের পক্ষে রায় দেবে

আগামী নির্বাচনে জনগণ আওয়ামী লীগের পক্ষে রায় দেবে

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বর্তমান মহাজোট সরকার যে উন্নয়ন করেছে ...

৩৫ লাখ করে পাবেন মাশরাফি-সাকিবরা

৩৫ লাখ করে পাবেন মাশরাফি-সাকিবরা

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শুরু হবে ৫ ফেব্রুয়ারি। আজ ঢাকায় স্থানীয় ...

'শেয়ার বাজারকে যারা ফটকা বাজার মনে করে তারা অর্থনীতির শত্রু'

'শেয়ার বাজারকে যারা ফটকা বাজার মনে করে তারা অর্থনীতির শত্রু'

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, পুঁজিবাজারকে যারা ফটকাবাজার বলেন, ...

ভিআইপি কক্ষ বানানো হয়েছে কাশিমপুর  কারাগারে কেন ?

ভিআইপি কক্ষ বানানো হয়েছে কাশিমপুর কারাগারে কেন ?

হঠাৎ করেই তোড়জোড় শুরু হয়েছে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে। ...

‘রোহিঙ্গা’র গুলিতে ১ রোহিঙ্গা নিহত

‘রোহিঙ্গা’র গুলিতে ১ রোহিঙ্গা নিহত

কক্সবাজারের উখিয়ার থাইংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় একদল মুখোশধারী ‘রোহিঙ্গা’র গুলিতে ...

স্বৈরশাসকের পতনের নেপথ্য নায়ক

স্বৈরশাসকের পতনের নেপথ্য নায়ক

আজ ২০ জানুয়ারি শহীদ আসাদ দিবস। ১৯৬৯ সালের এই দিনে ...

জাতীয়করণের দাবিতে আমরণ অনশন চলছে

জাতীয়করণের দাবিতে আমরণ অনশন চলছে

এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের শিক্ষা জাতীয়করণের এক দফা দাবিতে ষষ্ঠ দিনের ...

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট একবছর

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট একবছর

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ক্ষমতা গ্রহণের এক বছর পূর্ণ ...